ডিগ্রি ২য় বর্ষ(২০১৯-২০) নিয়মিত ও প্রাইভেট শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফরম পূরণ চলবে ৭/০২/২০২৩ থেকে ৭/০৩/২০২৩ পর্যন্ত। *পরীক্ষা হবে কেন্দ্র খালি থাকলে এপ্রিলের শুরুতে বা ঈদের পরপরই। কলেজসমূহে ফরম পূরণ ফি ১৫০০ এর মধ্যে।

ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচির মধ্যে পার্থক্য লিখ।

অথবা, ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচির মধ্যে বৈসাদৃশ্য লিখ।
অথবা, ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচির মধ্যেমধ্যে বৈসাদৃশ্য তুলে ধর।
অথবা, ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচির মধ্যে পার্থক্য উল্লেখ কর।
উত্তর ভূমিকা :
ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচি উভয়ই সামাজিক জরিপ গবেষণায় প্রাথমিক উপাত্ত বা তথ্য সংগ্রহের অত্যন্ত জনপ্রিয় কৌশল । উভয়ই গবেষণার উদ্দেশ্যের সাথে সম্পর্কিত কতিপয় সম্পর্কযুক্ত লিখিত প্রশ্নের সমন্বয়ে গঠিত । কাঠামোগত দিক থেকে ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচির মধ্যে কোনো মৌলিক পার্থক্য না থাকলেও ব্যবহারগত দিক থেকে এ দুটির মধ্যে পার্থক্য পরিলক্ষিত হয় ।
ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচির মধ্যে পার্থক্য : ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচির মূল পার্থক্য হচ্ছে উত্তর
লিপিবদ্ধকরণের ক্ষেত্রে। এ দুটির মধ্যে পার্থক্য আলোচনা করার পূর্বে প্রত্যয় দুটি বলতে আমরা কি বুঝি তা জানা দরকার ।
ডাক প্রশ্নমালা : সুনির্দিষ্ট ও পারম্পর্যপূর্ণ কতকগুলো লিখিত প্রশ্ন সমবায়ে যে প্রশ্নমালাকে ডাকযোগে বা অন্য কোনো উপায়ে তথ্য সংগ্রহের উদ্দেশ্য উত্তরদাতার নিকট প্রেরণ করা হয় তখন সে প্রশ্নমালাকে ডাক প্রশ্নমালা বলে । উত্তরদাতা কারো সহযোগিতা ছাড়াই সম্পূর্ণ স্বাধীনভাবে নিজে প্রশ্নমালাটি পূরণ করেন এবং তা গবেষকের নিকট ফেরত পাঠান । কেবল শিক্ষিত উত্তরদাতাদের নিকট থেকে ডাক প্রশ্নমালার সাহায্যে তথ্য বা উপাত্ত সংগ্রহ করা যায় ।
অনুসূচি : সুনির্দিষ্ট ও পারস্পর্যপূর্ণ কতিপয় প্রশ্ন সমবায়ে গঠিত প্রশ্নমালা, যা সাক্ষাৎকার গ্রহণকারী তথ্য সংগ্রহের উদ্দেশ্যে সাক্ষাৎকার গ্রহণে ব্যবহার করেন তাকে অনুসূচি বলে। অনুসূচির প্রশ্নাবলি সাক্ষাৎকার গ্রহণকারী উত্তরদাতাকে সরাসরি জিজ্ঞাসা করেন এবং উত্তরদাতা প্রদত্ত উত্তর তিনি অনুসূচির নির্দিষ্ট জায়গায় লিপিবদ্ধ করেন। ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচির তুলনামূলক সুবিধা ও অসুবিধার প্রেক্ষিতে এদের মধ্যে অনেক পার্থক্য পরিলক্ষিত হয়। নিম্নে গুরুত্বপূর্ণ পার্থক্যগুলো তুলে ধরা হলো :
১. পদ্ধতিগত : পদ্ধতিগত দিক থেকে ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে প্রশ্নমালা উত্তরদাতার কাছে ডাকযোগে প্রেরণ করা হয় এবং উত্তরদাতা সেটি নিজে পূরণ করে গবেষকের নিকট ফেরত পাঠান। কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে প্রশ্নমালা সরাসরি সাক্ষাৎকার গ্রহণের সময় ব্যবহার করা হয়। এক্ষেত্রে সাক্ষাৎকার গ্রহণকারী উত্তরদাতার মৌখিক উত্তর অনুসূচিতে লিপিবদ্ধ করেন ।
২. গবেষণা এলাকা : ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে গবেষণা এলাকা অনেক ব্যাপক ও বিস্তৃত থাকে, পক্ষান্তরে অনুসূচির ক্ষেত্রে গবেষণা সীমিত এলাকা জুড়ে ব্যাপ্ত থাকে ।
৩. সময় ও ব্যয় : ডাকযোগে প্রশ্নমালা অপেক্ষাকৃত কম সময়ে, কম ব্যয়ে প্রয়োগ করা যায় । কিন্তু অনুসূচি অধিক ব্যয়বহুল এবং সময় সাপেক্ষ কৌশল ।
৪. প্রশ্নের ব্যাখ্যা : ডাক প্রশ্নমালা সাধারণত স্বব্যাখ্যামূলক (Self-explanation) প্রশ্ন থাকে এবং প্রশ্নগুলো বিস্তারিত আকারে থাকে । অন্যদিকে, অনুসূচির ক্ষেত্রে প্রশ্নগুলো কম ব্যাখ্যামূলক হয় এবং প্রশ্নগুলো সংক্ষিপ্তাকারে থাকে ।
৫. ঝামেলা : উত্তরদাতার নিকট দ্রুত ডাকযোগে ঠিকানা অনুযায়ী প্রশ্নমালা পাঠানো যায় বলে ডাক প্রশ্নমালায় ঝামেলা কম হয় । কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে উত্তরদাতাকে অনেক সময় পাওয়া যায় না বলে এটি অধিক বা বেশ ঝামেলাপূর্ণ এবং এর সাথে ব্যাপক পরিভ্রমণের প্রশ্ন জড়িত ।
৬. গোপন তথ্যাবলি : ডাক প্রশ্নমালার উত্তরদাতা গোপন তথ্যাবলি নির্দ্বিধায় প্রকাশ করে কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে গোপন ব্যক্তিগত তথ্যাবলি প্রকাশ করতে সংকোচ বোধ করে ।
৭. প্রশ্নের ধরন : ডাকযোগে প্রেরিত প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে প্রশ্নের ধরন অত্যন্ত সহজ, সরল ও সাবলীল প্রকৃতির হয় । পক্ষান্তরে, অনুসূচির ক্ষেত্রে প্রশ্নের ধরন দুর্বোধ্য ও জটিল প্রকৃতির হয় ।
৮. স্বতঃস্ফূর্ত উত্তর : ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে উত্তরদাতার নিকট থেকে স্বতঃস্ফূর্ত উত্তর পাওয়ার সম্ভাবনা কম । পক্ষান্তরে, অনুসূচির ক্ষেত্রে উত্তরদাতা প্রশ্নের উত্তর এড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ পান না বলে স্বতঃস্ফূর্ত উত্তর পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি ।
৯. পক্ষপাতদুষ্ট : ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে প্রশ্নকারী (সাক্ষাৎকার গ্রহণকারী) নিজে উত্তর প্রদানের সময় উপস্থিত থাকেন না বলে ডাক প্রশ্নমালা দ্বারা সংগৃহীত তথ্যে পক্ষপাতদুষ্টতা কম হয়। পক্ষান্তরে, অনুসূচির ক্ষেত্রে সাক্ষাৎকার গ্রহণকারীর উপস্থিত হেতু উত্তরদাতা তথ্য প্রদানে পক্ষপাতের সুযোগ গ্রহণ করতে পারে। ফলে তথ্য অধিকতর পক্ষপাতদুষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে ।
১০. নমুনায়ন পদ্ধতির ব্যবহার : ডাক প্রশ্নমালায় নমুনায়ন পদ্ধতি ব্যবহার করা যায় না কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে নমুনায়ন পদ্ধতি ব্যবহার করা যায়।
১১. প্রতিনিধিত্বশীলতা : ডাক প্রশ্নমালার মাধ্যমে সংগৃহীত উপাত্ত সম্পূর্ণরূপে প্রতিনিধিত্বশীল হয় না । পক্ষান্তরে, অনুসূচির মাধ্যমে সংগৃহীত উপাত্তের ক্ষেত্রে এ ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হয় না।
১২. উত্তরদাতার প্রকৃতি : ডাক প্রশ্নমালা কেবল শিক্ষিত উত্তরদাতাদের নিকট থেকে তথ্য সংগ্রহের জন্য প্রযোজ্য । পক্ষান্তরে, অনুসূচি শিক্ষিত ও অশিক্ষিত উভয় ধরনের উত্তরদাতাদের নিকট থেকে তথ্য সংগ্রহের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য ।
১৩. যোগাযোগ : ডাক প্রশ্নমালার সাহায্যে উপাত্ত সংগ্রহের ক্ষেত্রে গবেষক এবং উত্তরদাতার মধ্যে প্রত্যক্ষ যোগাযোগের দরকার হয় না। কিন্তু অনুসূচির সাহায্যে উপাত্ত সংগ্রহের ক্ষেত্রে গবেষক এবং উত্তরদাতার মধ্যে প্রত্যক্ষ যোগাযোগের দরকার হয়।
১৪. প্রশ্নমালার ধারাবাহিকতা : ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে উত্তরদাতা প্রশ্নমালার ধারাবাহিকতা রক্ষা না করে বরং নিজের ইচ্ছামতো উত্তর দেন। পক্ষান্তরে, অনুসূচির ক্ষেত্রে তথ্য সংগ্রহকারী প্রশ্নমালার ধারাবাহিকতা রক্ষা করে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করেন ।
১৫. উত্তরদাতার সময় ও সুবিধা : ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে উত্তরদাতা তার নিজের সুবিধা অনুযায়ী সুস্থ মানসিকতা ও পর্যাপ্ত সময় নিয়ে তথ্য প্রদান করে থাকে । কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে সাক্ষাৎকারগ্রহণকারী তার সুবিধা অনুযায়ী তথ্য সংগ্রহ করেন । এক্ষেত্রে উত্তরদাতার সুযোগ-সুবিধার বিষয়টি কম গুরুত্ব পায় ।
১৬. তথ্য প্রদানের উৎস : ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে উত্তরদাতা তথ্য প্রদানের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণভাবে স্মৃতিশক্তির নির্ভর না হয়ে বরং বিভিন্ন উৎস থেকে তথ্য সংগ্রহ করে উত্তর প্রদানের সুযোগ পান, যা পূর্ণাঙ্গ উত্তর হিসেবে বিবেচিত । পক্ষান্তরে, অনুসূচির ক্ষেত্রে উত্তরদাতাকে সম্পূর্ণ স্মৃতিনির্ভর হয়ে তথ্য প্রদান করতে হয়, যা অসম্পূর্ণ এবং কম নির্ভরযোগ্য ।
১৭. প্রশ্নের কাঠামো : ডাক প্রশ্নমালায় প্রশ্নকর্তাকে উত্তরদাতাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, ধর্মীয় অনুভূতি, সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ প্রভৃতির উপর লক্ষ রেখে প্রশ্ন করতে হয় কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে এর প্রয়োজন নেই ।
১৮. উত্তর যাচাই : ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে উত্তরদাতার প্রদত্ত উত্তরই চূড়ান্ত, যা যাচাইয়ের সুযোগ নেই। কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে উত্তরদাতা প্রদত্ত উত্তর যাচাইয়ের সুযোগ থাকে ।
১৯. উত্তর প্রাপ্তির সম্ভাবনা : ডাক প্রশ্নমালার ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ উত্তর সম্বলিত প্রশ্নমালা ফেরত পাওয়ার সম্ভাবনা বা নিশ্চয়তা কম থাকে কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে উত্তর পাওয়ার নিশ্চয়তা থাকে ।
২০. নির্ভরযোগ্যতা : ডাক প্রশ্নমালার সাহায্যে সংগৃহীত তথ্যের নির্ভরযোগ্যতা অনেক ক্ষেত্রে কম থাকে। এক্ষেত্রে কখনো বা অপ্রাসঙ্গিক ও অস্পষ্ট, অসম্পূর্ণ কিংবা উত্তর বিহীন প্রশ্নমালা ফেরত পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে । কিন্তু অনুসূচির ক্ষেত্রে তথ্যের নির্ভরযোগ্যতা যেমন বেশি, তেমনি অপ্রাসঙ্গিক, অস্পষ্ট এবং অসম্পূর্ণ উত্তর পাওয়ার সম্ভাবনা নেই ।
উপসংহার : উপর্যুক্ত আলোচনা থেকে বলা যায় যে, ডাক প্রশ্নমালা ও অনুসূচি উভয়েরই আকৃতি ও প্রকৃতি মূলত এক এবং উভয়ই বাস্তব ক্ষেত্র হতে প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহের জন্য ব্যবহৃত হয়। বস্তুত ব্যবহারিক প্রয়োজনে অপেক্ষাকৃত আলাদা ধাচে প্রশ্নমালা উত্তরদাতাদের কাছে দু’ভাবে উপস্থাপন করা হয় মাত্র। গবেষণার উদ্দেশ্য, গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সামর্থ্য এবং বিশেষত উত্তরদাতাদের অবস্থান ও প্রকৃতি বিবেচনা করে সুবিধামতো ক্ষেত্রে ডাক প্রশ্নমালা এবং অনুসূচি প্রয়োগ করা হয়।

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!