ডিগ্রী এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এবং ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে Whatsapp করুন: +8801979786079  

ডিগ্রী এবং অনার্স পয় বর্ষ ২০২২ সকল বিষয়ের রকেট স্পেশাল সাজেশন ফাইনাল সাজেশন প্রস্তুত রয়েছে মূল্য মাত্র ২৫০টাকা প্রতি বিষয় এবং ৭ বিষয়ের নিলে ১৫০০টাকা। সাজেশন পেতে দ্রুত যোগাযোগ ০১৯৭৯৭৮৬০৭৯
ডিগ্রী তৃতীয় বর্ষ এবং অনার্স প্রথম বর্ষ এর রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে যোগাযোগ করুন সাজেশন মূল্য প্রতি বিষয় ২৫০টাকা। Whatsapp +8801979786079

ডিগ্রী প্রথম বর্ষ পরীক্ষা ২০২০ অনুষ্ঠিত ২০২২ মার্কেটিং দ্বিতীয় পত্র (রপ্তানি আমদানি ব্যাবস্থাপনা:১১২৩০৩) রকেট স্পেশাল সাজেশন ৯০% কমন ইনশাল্লাহ।


 

ক_বিভাগ (অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন)

১। পূর্ণরূপ লিখ- BGMEA , EPB , BEGMA, FBCCI., FOB, FBCCI, GSP, DCCI, MCCI, TCB, MNS, CFP, COD, WTO, UNTACD, MFN,FDBP, TIN, BEPAZ, SAARC, APEC, 

২। সুযোগ ব্যয় কাকে বলে ?  

উঃ কোন দ্রব্যের এক একক প্রান্তির জন্য অন্য দ্রব্যের যত একক ত্যাগ করতে হয় তাকে সুযোগ ব্যয় বলে । 

৩। EPZ কী ? 

উঃ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা ( ইপিজেড ) হলো এমন একটি অঞ্চল বা অর্থনৈতিক সুবিধাদি পরিবেষ্টিত স্থান যেখানে বিনা শুল্কে এবং অথবা শুল্ক কর্মীদের ন্যূনতম হস্তক্ষেপে পণ্যদ্রব্য আমদানি , প্রস্তুত এবং পুনঃজাহাজিকরণ করা হয় । 

৪। বাণিজ্য ভারসাম্য কী ?

উঃ একটি দেশের দৃশ্যমান দ্রব্যের আমদানী ও রপ্তানি মূল্যের পার্থক্যকে বাণিজ্যের ভারসাম্য বলে । 

৫। অবমূল্যায়ন কী ? 

উঃ সরকার যখন বৈদেশিক মুদ্রা অথবা স্বর্ণের তুলনায় দেশীয় মুদ্রার বিনিময় মূল্য কমিয়ে দেয় তখন তাকে মুদ্রার অবমূল্যায়ন বলে । 

৬। ব্যবস্থাপনা চুক্তি কী ? 

উঃ উৎপাদান প্রক্রিয়া এবং ব্যবস্থাপনাগত সুবিধা প্রদান করে মূলধন , বাজার সম্পর্কিত জ্ঞান এবং কর্মীবাহীনী সংগ্রহের মাধ্যমে চুক্তির ভিত্তিতে ব্যবসায় কার্যক্রম পরিচালনা করলে তাকে ব্যবস্থাপনা চুক্তি বলে । 

৭। প্রত্যক্ষ রপ্তানি কী ?  

উঃ কোন দেশের পণ্যসামগ্রী তার নির্ধারিত ভৌগোলিক অঞ্চল অতিক্রম করে অপর দেশে সরাসরি বিক্রয় করাকে প্রত্যক্ষ রপ্তানি বলে । 

৮। মৌসুমী বাট্রা কী ? 

উঃ উৎপাদন মৌসুম ছাড়া অন্য সময়ে পণ্য ক্রয়কারী ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে যে বাট্টা প্রদান করা হয় তাকে মৌসুমী বাট্রা বলে ।

৯। প্রোফর্মা চালান কাকে বলে ? 

উঃ ফরমায়েশ প্রাপ্তির পর রপ্তানিকারক ফরমায়েশকৃত মালের বিবরণ চালান পত্রের মতই যে বিবরণ আমাদানিকারকের নিকট প্রেরণ করে , তাকে প্রোফর্মা ইনভয়েস বলে । 

১০। লেনদেন ভারসাম্য কী ? 

উঃ কোন নির্দিষ্ট সময়ে একটি দেশের আমদানি – রপ্তানি ও অন্যান্য অর্থনৈতিক লেনদেন সংক্রান্ত মোট পাওনা ও দেনার ধারাবাহিক ও সংঘটিত হিসাবকে লেনদেন ভারসাম্য বলে । 

১১। লাইসেন্সিং কি? 

উঃ কোন কোম্পানি সুনির্দিষ্ট অঞ্চলে পণ্য বা সেবা বাজারজাত করার অধিকার চুক্তির মাধ্যমে প্রদান করা হলে তাকে লাইসেন্সিং বলে । 

১২। কোটা কী ? 

উঃ কোনো নির্দিষ্ট সময় কি পরিমান পণ্য বস্তুগত বা মূল্যগত অর্থে রপ্তানি বা আমদানি করা যাবে তা নিরূপণের পদ্ধতিকে কোটা বলে । 

১৩। ব্যাক টু ব্যাক ঋণপত্র কী ? 

উঃ রপ্তানিকারকের মূল ঋণপত্রের ভিত্তিতে ব্যাংক উত্তর : পরবর্তীতে ঋণপত্র খুলে থাকে । সেক্ষেত্রে ব্যাংক কর্তৃক সৃষ্ট দ্বিতীয় ঋণপত্রকে ব্যক – টু – ব্যাক ঋণপত্র বলে ।

১৪। জি . এস . পি বলতে কী বুঝ ?

উঃ GSP- এর পূর্ণনাম হলো : ( Generalized system বৈদেশিক বাণিজ্যে পণ্য বা সেবা রপ্তানির ক্ষেত্রে যে শুল্ক কোটার ভিত্তিতে সুবিধা পাওয়া যায় of preferences ) তাকে GSP বলে । 

১৫। টি . আই . এন কি?

উঃ সরকারকে আয়কর প্রদানের লক্ষ্যে সরকারের খাতায় প্রতিষ্ঠানের নামে আয়কর দাখিলার নম্বরকে TIN বলে ।

১৬। নস্ট্রো একাউন্ট ও ভস্ট্রো একাউন্ট কী ?

উঃ নন্ট্রো একাউন্টঃ এক দেশের ব্যাংক অন্যদেশে বিদেশি মুদ্রায় হিসাব রাখলে তাকে নস্ট্রো একাউন্ট বলে । যেমন বাংলাদেশে ব্যাংক যদি ভারতের স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া ব্যাংক রুপির ভিত্তিতে অর্থ জমা রাখে তাহলে বাংলাদেশ ব্যাংক তার হিসাবপত্রে নট্রো একাউন্ট হিসেবে উল্লেখ করবে

ভট্টো একাউন্টঃ এক দেশের ব্যাংক নিজের দেশের মুদ্রায় বিদেশি কোনো ব্যাংকে অর্থ জমা রাখে তাহলে প্রথমোক্ত ব্যাংক তার একাউন্টকে ভট্টো একাউন্ট হিসেবে উল্লেখ করবে । যেমন যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেম ব্যাংক যদি বাংলাদেশে মার্কিন ডলারের ভিত্তিতে বাংলাদেশ ব্যাংককে অর্থ জমা রাখে । তাহলে সেটি সেটি ভট্টো একাউন্ট হিসেবে বিবেচিত হবে ।

১৭। কনসোর্টিয়া কি ? 

উঃ যখন বেশী পরিমাণে অংশীদার একত্র হয়ে যৌথ উদ্যোগের মাধ্যমে বাণিজ্যিক সংঘ গড়ে তোলে ও বিনিয়োগ করে তখন তাকে কনসোটিয়া বলে ।

১৮। ডাম্পিং কী ?

উঃ কোনো দেশ অন্য দেশে নিজের পণ্য যখন অপরাপর প্রতিযোগীর তুলনায় কম মূল্যে বিক্রয়ের চেষ্টা করে তখন তাকে Dumping বলে ।

১৯। বাণিজ্যিক বিধি – নিষেধ কি ? 

উঃ একটি দেশের কর , শুল্ক , কোটা ও অন্যান্য শুল্ক বিহীন বিধি – নিষেধকে এক কথায় বাণিজ্যিক বিধি – নিষেধ বলে । 

২০। বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের বৃহৎ বাজার কোনোটি ? 

উঃ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের পণ্যের বৃহত্তম রপ্তানি বাজার । 

২১। লিম কি ? 

উঃ আমদানি পণ্যের বিপরীতে আমদানিকারক স্বল্পমেয়াদে যা এক মাসের মধ্যে পরিশোধ করতে হয় , এরূপ প্রাপ্ত সুবিধাকে লিম বলে । 

২২। এডভাইজিং ব্যাংক কাকে বলে ? 

উঃ আমদানিকারকের মনোনীত ব্যাংক রপ্তানিকারকের দেশে অবস্থিত যে ব্যাংকের বরাবর প্রত্যয়পত্র ইস্যু করে তাকে এডভাইজিং ব্যাংক বলে।

২৩। কোনো ধরনের দেশসমূহ জি . এস . পি সুবিধা প্রদান করে ?

উঃ উন্নত দেশসমূহ জি . এস . পি . সুবিধা প্রদান করে ।

২৪। মেধাজাত সম্পদ কী ?

উঃ যে সকল সম্পদ মানুষ তার মেধা খাটিয়ে অর্জন করে তাকে মেধাজাত সম্পদ বলে ।

২৫। পরোক্ষ রপ্তানি কাকে বলে ?

উঃ রপ্তানি বাণিজ্যে উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের বাইরে অথবা প্রত্যক্ষ রপ্তানি ব্যতীত যে সকল রপ্তানিমুখী প্রতিষ্ঠান বা ফার্ম মধ্যস্থব্যবসায়ী হিসেবে কার্যসম্পাদন করে তাকে পরোক্ষ রপ্তানি বলে ।

২৬। শুল্ক সংঘ কী ? 

উঃ শুল্ক সংঘ একটি আঞ্চলিক পদ্ধতি যেখানে সংঘের সদস্য দেশগুলোর মধ্যে বাণিজ্য বাধা নেই অথচ বাইরের অর্ন্য কোনো দেশের সাথে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে প্রত্যেক সদস্য একই শুল্ক আরোপ করে ।

২৭। বিশ্বায়ন কাকে বলে ? 

উঃ বিশ্বায়নের মূলকথা হলো অবাধ বাণিজ্য নীতি বা কৌশল অবলম্বন । অর্থাৎ , একদেশের বাণিজ্য অপর দেশের বাণিজ্যের সম্পৃক্ত হবার , অথবা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে কোনো রকম বিধি – নিষেধ আরোপিত না হবার যে প্রক্রিয়া সেটিই হচ্ছে বিশ্বায়ন ।

২৮। উলম্ব বাণিজ্য মেলা কী ? 

উঃ যে মেলায় ক্রেতা ও বিক্রেতার স্বার্থকে আলোকপাত করা হয় তাই হলো উলম্ব বাণিজ্য মেলা । 

২৯। রপ্তানি কী ?

উঃ রপ্তানি হলো এক দেশে তৈরি পণ্য অন্য দেশে বিক্রয় করা । 

৩০। বাণিজ্য হার কী ? 

উঃ বাণিজ্য হার বলতে আমদানি ও রপ্তানি পণ্যের বিনিময় হারকে বুঝায় । অন্যভাবে বলা যায় , কোন দেশের দ্রব্য সামগ্রী অপর দেশের দ্রব্য সামগ্রীর সঙ্গে যে হারে বিনিময় করা হয় তাকে বাণিজ্য শর্ত বা বাণিজ্য হার বলে । 

৩১। মুদ্রাস্ফীতি কী ? 

উঃ অর্থনীতিবিদ ক্রাউথারের মতে , “ মুদ্রাস্ফীতি এমন এক পরিস্থিতি যখন অর্থের মূল্য ক্রমেই কমে , অর্থাৎ দ্রব্যমূল্য ক্রমেই বাড়ে । ”

৩২। বাণিজ্য চক্র কী ? 

উঃ সামগ্রিক অর্থনৈতিক কার্যক্রমের উত্থান – পতন নিয়ে যে চক্র আবর্তিত হয় তা মূলত ব্যবসায় – প্রতিষ্ঠানে কার্যক্রমকে প্রভাবিত করে তাকে বাণিজ্য চক্র বলে । 

৩৩। আন্তর্জাতিক বাণিজ্য তত্ত্ব কী ? 

উঃ আন্তর্জাতিক বাণিজ্য তত্ত্ব বলতে কোনো দেশের সীমানা পেরিয়ে পণ্যসামগ্রীর বিনিময়কে বুঝায় । আরও স্পষ্ট করে বলতে গেলে , আন্তর্জাতিক বাণিজ্য হলো বিশ্বের বিভিন্ন স্বাধীন ও সার্বভৌমত্বের অধিকারী দেশের মধ্যে পণ
্য ও সেবার আদান – প্রদান বা বিনিময় কার্যক্রম। 

৩৪। রপ্তানি অর্থায়ন কী ? 

উঃ নির্দিষ্ট সময়ে রপ্তানি ব্যবসায় সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের জন্য প্রয়োজনীয় কাণ্ড সংগ্রহ করতে হয় তাকেই রপ্তানি অর্থায়ন বলে । 

৩৫। প্যাকিং ঋণ কী ? : 

উঃ একজন রপ্তানিকারক রেলওয়ে রসিদ , স্টিমার অথবা বন্দরে মালামাল প্রেরণের প্রমাণস্বরূপ বিশেষ রসিদের বিপরীতে যে ঋণ গ্রহণ করে তাকে প্যাকিং ঋণ বলে । 

৩৬। রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কী ? 

উঃ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা ( ইপিজেড ) হলো এমন একটি অঞ্চল বা অর্থনৈতিক সুবিধাদি পরিবেষ্টিত স্থান যেখানে বিনা শুল্কে এবং / অথবা শুল্ক কর্মীদের ন্যূনতম হস্তক্ষেপে পণ্যদ্রব্য আমদানি , প্রস্তুত এবং পুনঃজাহাজিকরণ করা হয় ।

খ-বিভাগ (সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন)

১। রপ্তানি অর্থসংস্থানের ধরন আলোচনা কর । ১০০%

২। অনুন্নত দেশে বাণিজ্য হারের প্রতিকূলতার কারণ আলোচনা কর । ১০০%

৩। আমদানি ব্যবস্থাপনা ও  রপ্তানি ব্যবস্থাপনা কী ? আমদানি ব্যবস্থাপনা ও রপ্তানি ব্যবস্থাপনার  মধ্যে পার্থক্য দেখাও । ১০০%

৪। বাণিজ্যের ভারসাম্য ও লেনদেনের ভারসাম্যের মধ্যেকার পার্থক্য দেখাও। ১০০%

৫। রপ্তানি মূল্য নির্ধারণের গুরুত্ব আলোচনা কর । ১০০%

৬। ব্যাক – টু – ব্যাক এল.সি বলতে কী বুঝায় ? ১০০%

৭। অদৃশ্যমান রপ্তানি ও আমদানি কী ? ১০০%

৮। আমদানি ব্যবস্থাপনার বৈশিষ্ট্যগুলো আলোচনা কর । ১০০%

৯। স্থির সুযোগ ব্যয় তত্ত্বটি সংক্ষেপে আলোচনা কর । ১০০%

লেনদেন ভারসাম্যে ভারসাম্যহীনতার কারণসমূহ বর্ণনা কর । ১০০%

১০। বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের সমস্যাগুলো আলোচনা কর । ১০০%

১১। জাহাজীকরণপূর্ব রপ্তানি ঋণের বৈশিষ্ট্যগুলো আলোচনা কর । ৯৯%

১২। সম্ভবনাময় বাজার চিহ্নিতকরণের বিবেচ্য বিষয়গুলো কী কী ? ৯৯%

১৩। অনুকূল বাণিজ্য হার কি সর্বদা একটি দেশের জন্য মঙ্গলজনক হয় ?৯৯%

১৪। ৪। রপ্তানি মূল্য নির্ধারণের উদ্দেশ্য ও গুরুত্ব আলোচনা কর। রপ্তানি ব্যয় নির্ধারণের গুরুত্ব ব্যাখ্যা কর । ৯৯%

১৫। বাংলাদেশের প্রচলিত ও অপ্রচলিত পণ্যের একটি তালিকা দাও । ৯৯%

গ-বিভাগ (রচনামূলক প্রশ্ন)

১। ডেভিড রিকার্ডোর তুলনামূলক ব্যয় তত্ত্বটি আলোচনা কর । ১০০%

২। আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের তুলনামূলক ব্যয় সুবিধা তত্ত্বটি ব্যাখ্যা কর । ১০০%

৩। রপ্তানি বাজারে প্রবেশের ধরন ও অর্থায়নের বিভিন্ন ধরন বর্ণনা কর । ১০০%

৪। রপ্তানি মূল্য নির্ধারণের পদ্ধতিগুলো ও রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর কার্যাবলি  বর্ণনা কর। ১০০%

৫। আমদানি ব্যবস্থাপনার কার্যাবলি আলোচনা কর । ১০০%

৬। বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্যের বৈশিষ্ট্য আলোচনা কর । ১০০%

৭। রপ্তানি মূল্য নির্ধারণের কৌশলসমূহ ও রপ্তানি দলিলপত্রের প্রকারভেদ আলোচনা কর । ১০০%

৮। বিশ্বব্যাপী রপ্তানি বাজারজাতকরণ পরিবেশ আলোচনা কর । ১০০%

৯। বিভিন্ন প্রকার প্রত্যয়পত্র আলোচনা কর । ১০০%

১০। প্রতিকূল লেনদেনের ভারসাম্য দূরীকরণের উপায়গুলো আলোচনা কর । ১০০%

১১। রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ এলাকা বলতে কি বুঝ ?  বাংলাদেশের রপ্তানি উন্নয়নে রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ এলাকার ভূমিকার বর্ণনা দাও । ৯৯%

১২। “ যথাযথ বাজার তথ্য সংগ্রহ ও বিশ্লেষণ সম্ভাব্য বাজার অনুসন্ধানের প্রাথমিক কাজ হিসেবে বিবেচিত ” —ব্যাখ্যা কর । ৯৯%

১৩। প্রত্যয় পত্র কী ? প্রত্যয় পত্র খোলার ধাপসমূহ বর্ণনা দাও । 

১৪। বাণিজ্য হার নির্ধারণের পদ্ধতিগুলো আলোচনা কর । ৯৯%

১৫। আমদানিকৃত পণ্য বন্দর থেকে খালাস করার ধাপসমূহ আলোচনা কর । ৯৯%

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published.