ডিগ্রি ২য় বর্ষ(২০১৯-২০) নিয়মিত ও প্রাইভেট শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফরম পূরণ চলবে ৭/০২/২০২৩ থেকে ৭/০৩/২০২৩ পর্যন্ত। *পরীক্ষা হবে কেন্দ্র খালি থাকলে এপ্রিলের শুরুতে বা ঈদের পরপরই। কলেজসমূহে ফরম পূরণ ফি ১৫০০ এর মধ্যে।

CEDAW এর ধারাসমূহ আলোচনা কর।

অথবা, সিডও সনদের উল্লেখযোগ্য ধারাগুলো বর্ণনা কর।
CEDAW এর ধারাগুলো উল্লেখ কর।
সিডও সনদের ধারাসমূহের বর্ণনা দাও।
CEDAW এর উল্লেখযোগ্য ধারাসমূহ লিখ।
সিডও সনদের ধারাসমূহ তুলে ধর।
উত্তর৷ ভূমিকা :
বিভিন্ন কার্যকরী গ্রুপ, নারীর মর্যাদা বিষয়ক কমিশন এবং জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে দীর্ঘ পাঁচ বছরব্যাপী সমন্বিত আলোচনা ও পর্যালোচনার সফল পরিণতি ছিল এ ‘নারীর প্রতি সকল প্রকার বৈষম্য বিলোপ সনদ’ বা সিডও’। সকল ব্যাপারে এবং সকল ক্ষেত্রে নারীর সমঅধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য এ সনদে আইনসিদ্ধ পদ্ধতি ও আন্তর্জাতিক ভাবে স্বীকৃত নীতিমালা এবং কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।
CEDAW এর ধারাসমূহ : সিডও সনদে ৬টি পরিচ্ছেদ সংবলিত ৩০টি ধারা রয়েছে। এই ধারার মধ্যে নারী পুরুষের সমতা সংক্রান্ত প্রধান ধারাগুলো নিম্নে আলোচনা করা হলো :
ধারা ১. নারীর প্রতি বৈষম্যের ব্যাখ্যা বা সংজ্ঞা প্রদান।
ধারা ২. বৈষম্য বিলোপ করে নারী-পুরুষের মধ্যে সমতা স্থাপনের নীতিমালা গ্রহণ ।
ধারা ৩. নারীর মানবাধিকার ও স্বাধীনতা নিশ্চিতকরণ।
ধারা ৪. নারী-পুরুষের মধ্যে প্রকৃত সমতা আনয়নে সাময়িক ও বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ ।
ধারা ৫. নারী-পুরুষের প্রচলিত ভূমিকা ও কর্মকাণ্ডভিত্তিক নেতিবাচক সংস্কৃতি পরিবর্তন।
ধারা ৬. পতিতাবৃত্তি দূরীকরণে আইনসহ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ ।
ধারা ৭. রাজনীতি ও জনজীবনের সর্বত্র নারীর অংশগ্রহণের সম অধিকার নিশ্চিতকরণ।
ধারা ৮. আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশের প্রতিনিধিরূপে নারীদের প্রেরণ।
ধারা ৯. নারীর জাতীয়তা ও নাগরিকত্ব অধিকার প্রতিষ্ঠা করা।
ধারা ১০. সকল ধরনের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণে নারীর সমান অধিকার নিশ্চিতকরণ।
ধারা ১১. চাকরি, কর্মসংস্থান ও কর্মক্ষেত্রে নারী-পুরুষের সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা।
ধারা ১২. নারীর জন্য মাতৃত্বকালীন পুষ্টি ও স্বাস্থ্য পরিচর্যাসহ স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা সেবা প্রদান।
ধারা ১৩. অর্থনৈতিক ও সামাজিক সুযোগ-সুবিধা প্রাপ্তিতে নারীর সমান অধিকার নিশ্চিতকরণ।
ধারা ১৪. পল্লি নারীদের উন্নয়ন ও তাদের সমঅংশগ্রহণ ও অংশীদারিত্ব নিশ্চিত করা।
ধারা ১৫. নারীর আইনগত ও নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করা।
ধারা ১৬. বিয়েসহ সকল ব্যক্তিগত ও পারিবারিক বিষয়ে নারী-পুরুষের সমঅধিকার প্রতিষ্ঠা।
উপসংহার : উপর্যুক্ত আলোচনার আলোকে যায়, সিডও সনদ হলো মানব সমাজ, সভ্যতার বিকাশ ও উন্নয়নে যুগ যুগ ধরে নারী যে গঠনমূলক ভূমিকা পালন করে আসছে তার যথাযথ স্বীকৃতি দান। সমাজ, রাষ্ট্র তথা সমস্ত বিশ্বের শান্তি ও উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় সকল ক্ষেত্রে নারী-পুরুষের মধ্যে সমতা স্থাপন করা।

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!