Answer

বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোতে নারীদের অংশগ্রহণ সম্পর্কে আলোচনা কর।

অথবা, বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোতে নারীর অংশগ্রহণ সম্পর্কে বর্ণনা দাও।
অথবা, বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোতে নারীর অংশগ্রহণ সম্পর্কে বিবরণ দাও।
অথবা, বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলগুলোতে নারীর অবস্থান তুলে ধর।
উত্তর৷ ভূমিকা :
রাজনৈতিক দলের নেতৃত্বের সাথে এদেশের নারী সমাজের সম্পৃক্ততা খুবই সীমিত আকারে। বিভিন্ন রাজনৈতিক আন্দোলন ও সংগ্রামে রাজনৈতিক দলের পুরুষ পাশাপাশি নারী সদস্যের ভূমিকা
উল্লেখযোগ্য। কিন্তু এ সত্ত্বেও এদেশের রাজনৈতিক দলগুলোতে নারী সমাজের প্রতিনিধিত্ব খুবই নগণ্য। ফল
রাজনৈতিক দলে নারী : বর্তমানে বাংলাদেশে সর্ববৃহৎ দুটি দল বিএনপি ও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে রয়েছেন দুজন নারী—দেশনেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং বেগম খালেদা জিয়া। কিন্তু কোনো কোনো গবেষক বলেন, এরা কেউই নারী হিসেবে ব্যক্তিগত যোগ্যতা বা নারী সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে নয় বরং পারিবারিক উত্তরাধিকার সূত্রে উক্ত হয়েছেন। তাদের নেতৃত্বাধীন রাজনৈতিক দলসমূহের নীতিনির্ধারণী কমিটিগুলোতে নারী সমাজের সীমিত। মূলত নেত্রীদ্বয় নারী সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে নয় বরং নিজ নিজ দলের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেন। যেখানে পুরুষ সদস্যরাই প্রভুত্বকারী। একইভাবে জাতীয় পার্টি, জামায়াতে ইসলামী, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টিতে নারীর প্রতিনিধিত্ব খুবই নগণ্য। প্রতিনিধিত্ব খুবই পদে আসীন নিম্নে বাংলাদেশের প্রধান কয়েকটি রাজনৈতিক দলের নীতিনির্ধারণী উচ্চ পর্যায়ে নারীর অবস্থান তুলে ধরা হলো :
১. বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বর্তমানে ক্ষমতাসীন দল। এই রাজনৈতিক দলের প্রধান বর্তমানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মোট প্রেসিডিয়াম সদস্য ১৫ জন। এর মধ্যে ১১ জন পুরুষ সদস্য, ৪ জন নারী সদস্য এবং নারী সদস্যের হার ২৬.৭%। জাতীয় নির্বাহী কমিটির মোট সদস্য ৭৩ জন এর মধ্যে পুরুষ সদস্য ৬৬ জন, নারী সদস্য ৭ জন এবং নারী সদস্যের হার ৯.৬%। মোট উপদেষ্টামণ্ডলী ৪১ জন এর মধ্যে পুরুষ সদস্য ৩৮ জন, মহিলা সদস্য ৩ জন এবং নারী সদস্যের হার ৭.৩%। পলিট ব্যুরোর মোট সদস্য ৬ জন এর মধ্যে পুরুষ ৬, নারী ০ এবং নারী সদস্যের হার ০%।বিজ্ঞান (ডিগ্রি ৬ষ্ঠ পত্র)-৬৩
২. বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল : বাংলাদেশের জাতীয়তাবাদী দলের চেয়ারপারসন একজন নারী বেগম খালেদা জিয়া। এই রাজনৈতিক দলের প্রেসিডিয়াম মোট সদস্য ১৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ সদস্য ১৪ জন, নারী সদস্য ৫ এবং নারী সদস্যের হার ২৬.৩%। সম্পাদকমণ্ডলীর মোট সদস্য ৪৭ এর মধ্যে পুরুষ সদস্য ৩৯, নারী সদস্য ৮ জন এবং নারী সদস্যের হার ১৭.৭%। জাতীয় কার্যনির্বাহী মোট সদস্য ২১ জন এর মধ্যে পুরুষ সদস্য ২০ জন, নারী সদস্য ১জন এবং নারী সদস্যদের হার ৪.৮ %। জাতীয় স্থায়ী কমিটির মোট সদস্য ১২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১১ জন, নারী সদস্য ১ জন এবং নারী সদস্যের হার ৮.৩%। চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের মোট সদস্য ২১ জন, এর মধ্যে পুরুষ সদস্য ২০ জন, নারী সদস্য ১ জন এবং নারী সদস্যের হার ৪.৮%।
৩. জাতীয় পার্টি : বর্তমানে বাংলাদেশের জাতীয় পার্টির প্রধান হিসেবে যিনি দায়িত্ব পালন করছেন তিনিও একজন নারী, নাম তাঁর রওশন এরশাদ। তিনি জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হোসাইন মোঃ এরশাদের স্ত্রী। এই দলের স্থায়ী কমিটির মোট সদস্য ৩১ । এর মধ্যে পুরুষ ২৯, নারী ২ এবং নারী সদস্যের হার ৬.৫%। জাতীয় কার্যনির্বাহী কমিটিতে মোট ২০১ জন সদস্যের মধ্যে ১৮৬ জন পুরুষ, ১৫ জন নারী এবং নারী সদস্যের হার ৭.৫%।
৪. জামায়াতে ইসলাম : এই রাজনৈতিক দলে উচ্চ পদে কোনো নারী নেই। এই দলের কেন্দ্রীয় কমিটি (মজলিশ ই-গুরা) মোট সদস্য ২৩৭ এর মধ্যে ২৩২ জন পুরুষ এবং ৩৫ জন নারী রয়েছে।
৫. বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি : বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটিতে মোট ৬৩ জন সদস্যের মধ্যে ৪ জন নারী এবং স্থায়ী কমিটিতে মোট ১৫ জন সদস্যের মধ্যে ১ জন নারী সদস্য রয়েছে।
৬. বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টি : এই দলের কেন্দ্রীয় কমিটির ৪১ জন সদস্যের মধ্যে ২ জন নারী সদস্য রয়েছে কিন্তু প্রেসিডিয়াম কমিটিতে কোনো নারী নেই ।
উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, প্রকৃতপক্ষে পুরুষতান্ত্রিক মনোভাব ও আচরণের ফলেই নারী সদস্যরা রাজনৈতিক দলগুলোতে তাদের যথাযথ প্রতিনিধিত্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!