Answer

বিশেষ মাঠকর্ম সংস্থাপনের শর্তগুলো লিখ।

অথবা, আবদ্ধ মাঠকর্ম সংস্থাপনের শর্তসমূহ আলোচনা কর।
অথবা, বিশেষ মাঠকর্ম সংস্থাপনের শর্তসমূহ কি কি?
অথবা, আবদ্ধ মাঠকর্ম সংস্থাপনের শর্তসমূহ উল্লেখ কর।
উত্তরা।৷ ভূমিকা :
আবদ্ধ বা বিশেষ মাঠকর্ম বলতে সেই মাঠকর্মকে বুঝায় যেখানে সমাজকর্মীরা একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে বিশেষজ্ঞ হিসেবে গড়ে উঠার ক্ষেত্রে জ্ঞানার্জন করেন। সাধারণ সহগামী মাঠকর্ম শেষ করার পর আবদ্ধ বা বিশেষ মাঠকর্ম অনুশীলনে প্রেরণ করা হয়।
আবদ্ধ মাঠকর্ম/ বিশেষ মাঠকর্ম সংস্থাপনের শর্ত
আবদ্ধ মাঠকর্ম অনুশীলনের কতগুলো শর্ত রয়েছে। নিম্নে এ শর্তগুলো উল্লেখ করা হলো:
১. ন্যূনতম মাস্টার্স ডিগ্রি : আবদ্ধ মাঠকর্ম অনুশীলনের জন্য শিক্ষার্থীদের কমপক্ষে মাস্টার্স পর্যায়ের শিক্ষার্থী হতে হয়। (ST. Xavier’s College, Palayamkottai-627002, Tamil Nadu India )
২. দক্ষ পেশাগত সমাজকর্মী : একজন দক্ষ পেশাগত সমাজকর্মীর অধীনে শিক্ষার্থীদের আবদ্ধ মাঠকর্ম অনুশীলনের কাজ সম্পন্ন করতে হয়।
৩. শিক্ষার্থীর চাহিদা : আবদ্ধ / বিশেষ মাঠকর্ম অনুশীলনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা এমন কোন প্রতিষ্ঠানের পছন্দক্রম দিতে পারবে না যেখানে তাদের নিজস্ব লোকজন সম্পৃক্ত থাকে।
৪. অনুমতি পত্র : আবদ্ধ/ বিশেষ মাঠকর্ম অনুশীলনের ক্ষেত্রে পেশাগত সমাজকর্ম অনুশীলনকারীদেরকে সংশ্লিষ্ট এজেন্সিতে কাজ করার জন্য একটি অনুমতি পত্র গ্রহণ করতে হয়।
৫. শতভাগ উপস্থিতি : আবদ্ধ / বিশেষ মাঠকর্ম অনুশীলনের ক্ষেত্রে পেশাগত সমাজকর্ম অনুশীলনকারীদেরকে শতভাগ নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে হয়।
৬. ড্রেস কোড : প্রশিক্ষণার্থীদের সংশ্লিষ্ট এজেন্সির নিয়মনীতি অনুযায়ী ড্রেস কোড মেনে চলতে হয়। অর্থাৎ তাদেরকে নির্দিষ্ট পোশাক পরিধান করে এজেন্সিতে যেতে হয়। তাছাড়া তাদেরকে সংশ্লিষ্ট আইডি কার্ডও সঙ্গে রাখতে হয়।
৭. পেশাগত মূল্যবোধ : প্রশিক্ষণার্থীদের সংশ্লিষ্ট এজেন্সির মূলবোধ মেনে চলার সাথে সাথে সমাজকর্মের আদর্শ,নীতিমালা ও মূল্যবোধকেও ধারণ করে কাজ করতে হয়। এক্ষেত্রে তাদেরকে সাহায্যার্থীর মূল্যবোধ সম্পর্কেও প্রশিক্ষণার্থীকে সচেতন থাকতে হয়।
৮. দৈনন্দিন কর্ম লিখে রাখা : প্রশিক্ষণার্থীদেরকে দৈনন্দিন কর্ম লিখে রাখতে হয়। একটি ডায়েরি বা রেকর্ড বহিতে দৈনন্দিন কর্ম লিখে প্রশিক্ষণার্থীদেরকে স্বাক্ষর করতে হয় এবং তাতে এজেন্সি সুপারভাইজারের স্বাক্ষর নিতে হয়।
৯. রিপোর্ট প্রেরণ : প্রশিক্ষণার্থীরা দৈনন্দিন কর্ম লিখে রাখার পাশাপাশি তার একটি ফটোকপি সমাজকর্ম বিভাগের বিভাগীয় প্রধান/ তত্ত্বাবধায়কের নিকট প্রতি ১০ দিনে ১দিন প্রেরণ করতে হয়।
১০. চূড়ান্ত প্রতিবেদন : প্রশিক্ষণার্থীদেরকে তাদের প্রশিক্ষণ শেষে একটি চূড়ান্ত প্রতিবেদন তৈরি করতে হয়।
উপসংহার : আবদ্ধ মাঠকর্ম/বিশেষ মাঠকর্ম সংস্থাপনের উপরিউল্লিখিত শর্তগুলো মেনে চলতে হয়। শর্তগুলো মেনে চললে মাঠকর্ম অনুশীলন সফল হয়।

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!