ডিগ্রি ২য় বর্ষ(২০১৯-২০) নিয়মিত ও প্রাইভেট শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার ফরম পূরণ চলবে ৭/০২/২০২৩ থেকে ৭/০৩/২০২৩ পর্যন্ত। *পরীক্ষা হবে কেন্দ্র খালি থাকলে এপ্রিলের শুরুতে বা ঈদের পরপরই। কলেজসমূহে ফরম পূরণ ফি ১৫০০ এর মধ্যে।

বিকেন্দ্রীকরণের প্রতিবন্ধকতাসমূহ উল্লেখ কর।

অথবা, বিকেন্দ্রীকরণ কোনো ধরনের প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হয়ে থাকে?
অথবা, বিকেন্দ্রীকরণের বাধাসমূহ উল্লেখ কর।
অথবা, বিকেন্দ্রীকরণের অন্তরায়গুলো উল্লেখ কর।
অথবা, বিকেন্দ্রীকরণের সমস্যাসমূহ তুলে ধর।
অথবা, বিকেন্দ্রীকরণের প্রতিবন্ধকতা সম্পর্কে লিখ।
উত্তর৷ ভূমিকা :
বিকেন্দ্রীকরণের মাধ্যমে কোনো নির্দিষ্ট ভৌগোলিক সীমা রেখার মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার আঞ্চলিক ও স্থানীয় সংস্থাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ দায়িত্ব ও কর্তৃত্ব অর্পণ করে। কেন্দ্র থেকে আঞ্চলিক পর্যায়ে কর্মচারী প্রেরিত হয় এবং এরা কেন্দ্রের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ সম্পাদন করেন।
বিকেন্দ্রীকরণের প্রতিবন্ধকতাসমূহ : বিকেন্দ্রীকরণ প্রশাসনিক দক্ষতা অর্জনের জন্য একান্ত অত্যাবশ্যক হলেও এর প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে জটিল ধরনের সমস্যা দেখা যায়। বিকেন্দ্রীকরণের ক্ষেত্রে নিম্নবর্ণিত প্রতিবন্ধকতাসমূহ রয়েছে। যথা :
১. ঐতিহ্যগত প্রভাব (Influence of tradition)
২. কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ ও তত্ত্বাবধানের প্রয়োজনীয়তা (The requirement of Central Control and supervision)
৩. স্থানীয় চাপসৃষ্টিকারী গোষ্ঠীসমূহের প্রভাব (Influence of local Pressure Group)
৪. বিভিন্ন বিকেন্দ্রিক সংস্থাসমূহের মধ্যে সমন্বয় (Co-ordinating the Various decentralized units)
১. ঐতিহ্যগত প্রভাব (Influence of tradition) : ঐতিহ্যগত প্রভাব বিকেন্দ্রীকরণের পথে সর্বপ্রথম বাধা।ঐতিহ্যগত প্রভাব লোকপ্রশাসনকে সমাজের অন্যান্য ক্ষেত্রের সাথে সুষ্ঠুভাবে খাপখাওয়ানোর জন্য বিরাট প্রতিবন্ধকতা কাজ করে। প্রশাসকগণ যখন সংগঠনের পরিবর্তনশীলতা সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান লাভ করতে পারেন না এবং যখন তারা পুরনো নীতি ও পদ্ধতি আঁকড়িয়ে থাকতে চান তখন প্রশাসনিক বিকেন্দ্রীকরণের সুষ্ঠুনীতি প্রতিষ্ঠা করা অসম্ভব হয়ে দাঁড়ায়।
২. কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ ও তত্ত্বাবধানের প্রয়োজনীতা (The requirement of Central Control and supervision) : যে কোনো প্রশাসনিক সংঠনকে কেন্দ্রীয় দপ্তর এবং আঞ্চলিক অফিসের নিয়ন্ত্রণাধীন বিষয়াবলি শনাক্তকরণ নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়। আঞ্চলিক দপ্তরগুলোকে কেন্দ্রীয় দপ্তরের নিয়ন্ত্রণমুক্ত রাখাটাও একটা অন্যতম সমস্যা।
৩. স্থানীয় চাপসৃষ্টিকারী গোষ্ঠীসমূহের প্রভাব (Influence of local Pressure Groups) : চাপ সৃষ্টিকারী গোষ্ঠী একটি সুসংগঠিত দল যারা নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হওয়া ছাড়াই সরকারি নীতিসমূহকে প্রভাবিত করে থাকে। ক্ষমতার বাইরে থাকলেও তারা সরকারের সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে প্রভাব বিস্তার করে থাকে। যে শাসনব্যবস্থায় কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ অতি দুর্বল এবং যাতে আঞ্চলিক সংস্থার কর্মচারীদের উপর অত্যধিক ক্ষমতা ও কর্তৃত্ব নিয়োজিত থাকে সে শাসনব্যবস্থায় সরকারি নীতিসমূহ স্থানীয় জনগণ কর্তৃক অযাচিতভাবে প্রভাবিত হওয়ার যথেষ্টই সম্ভাবনা বিরাজমান থাকে।
৪. বিভিন্ন বিকেন্দ্রীকৃত সংস্থাসমূহের মধ্যে সমন্বয় (Co-ordinating the Various decentralized units) : বিকেন্দ্রীকৃত সংস্থাগুলোর মধ্যে সমন্বয়সাধন করাই বিকেন্দ্রীকরণের সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা। বিকেন্দ্রীকৃত সংস্থায় কেন্দ্রীয় ও আঞ্চলিক প্রশাসনের মধ্যে সহজে যোগাযোগ রক্ষা করা সম্ভব নয়। বিশেষত আঞ্চলিক দপ্তরসমূহ যখন কেন্দ্রীয় দপ্তর হতে অনেক দূরে অবস্থান করে তখন এ সমস্যা আরো প্রকট হয়ে দেখা দেয়। এতে প্রশাসনিক জটিলতা বৃদ্ধি পায় এবং কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ অপরিহার্য হয়ে দাঁড়ায়।
উপসংহার : পরিশেষে বলা যায় যে, সুষ্ঠু বিকেন্দ্রীকরণের জন্য উপযুক্ত সমস্যাসমূহ দূরীভূত করা একান্ত আবশ্যক । এরূপ সমস্যা দূরীকরণের মাধ্যমেই কেবল যথাযথ, অর্থবহ ও কার্যকর বিকেন্দ্রীকরণের নীতি প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব।

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!