প্রিলিমিনারি টু মাস্টার্স পরীক্ষা ২০২৩ বিভাগ ব্যাবস্থাপনা বিষয় ব্যবসআয় পরিসংখ্যান: ৪১২৬০৫ রকেট স্পেশাল সাজেশন

প্রিলিমিনারি টু মাস্টার্স সাজেশন
প্রিলিমিনারি টু মাস্টার্স সাজেশন

ক_বিভাগ (অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন)
১। পূর্ণরূপ লিখ-FGD,
২। ব্যবসার পরিসংখ্যান কি?
উঃ ব্যবসায়ের বিভিন্ন গোত্রের সাথে সংশ্লিষ্ট কোনো বিষয়ের পরস্পর সম্পর্কযুক্ত সংখ্যাহক তথ্যাবলিকে ব্যবসার পরিসংখ্যান বলে।
৩। উপাত্ত বিন্যাস কি?
উঃ উপাত্ত বিন্যাস হলো সংগৃহীত কাঁচা তথ্যসমূহকে উর্ধ্ব বা নিম্নক্রমানুসারে সাজানো।
৪। নমুনায়ন কি?
উঃ সমগ্রকেরা একটি অংশ বিচার বিশ্লেষণ করে পরীক্ষায় সম্পূর্ণ বিষয় সম্পর্কে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার পরিসংখ্যানিক পদ্ধতিকে নমুনায়ন বলে।
৫। পরিসর কি?
উঃ একটি তথ্যসারির সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন সংখ্যা মানন্বয়ের মধ্যকার অনপেক্ষ পার্থক্য হচ্ছে পরিসর।
৬। কেন্দ্রীয় প্রবণতা কি?
উঃ সাধারণত পরিসংখ্যানিক উপাত্তসমূহ কেন্দ্রীয় মানের চতুর্দিকে ঘনীভূত হওয়ার ঝোক বা প্রবণতাকেই কেন্দ্রীয় প্রবণতা বলে।
৭। পরিমিত ব্যবধান কি?
উঃ কোন নিবেশনের গড় হতে সংখ্যাগুলোর ব্যবধানের বর্গের সমষ্টিকে তথ্যের সংখ্যা দ্বারা ভাগ করে যে মান পাওয়া যায় তার ধনাত্মক বর্গমুলকে পরিমিত ব্যবধান বলে।
৮। বিস্তার কি?
উঃ কোনো তথ্য সারির কেন্দ্রীয় মান থেকে অন্য সকল মানের বিচ্যুতির পরিমাপই হলো বিস্তার।
৯। সহ-সমৃদ্ধ কি?
উঃ দুই বা ততোধিক চলকের মধ্যে বিদ্যমান নির্ভরশীলতার সম্পর্ককে সহ-সম্বন্ধ বলে।
১০। প্রচুরক কি?
উঃ গণসংখ্যা নিবেশনের যে রাশি সর্বাধিকবার সংঘটিত হয় তাকে প্রচুরক বলে।
১১। নাস্তি কল্পনা কি?
উঃ যথার্থতা যাচাইয়ের শুরুতেই সক সম্পর্কে অনুমান বা কল্পনা করা হয়, এরূপ কল্পনাকে নাস্তি কল্পনা বলে।
১২। আয়তলেখ কি?
উঃ যে লেখচিত্র বিভিন্ন শ্রেণির গণসংখ্যাকে আয়তক্ষেত্রের সাহায্যে প্রকাশ করে তাকে আয়তলেখ বলে।
১৩। সম্ভাবনা কি?
উঃ কোন একটি ঘটনা ঘটবে কি ঘটবে না তার গাণিতিক পরিমাপকেই সম্ভাবনা বলে।
১৪। ক্রমযোজিত গণসংখ্যা কি?
উঃ গণসংখ্যা নিবেশনে প্রতিটি শ্রেণির গণসংখ্যা ক্রমাগতভাবে যোগ করে যে সকল সংখ্যার মান পাওয়া যায় তাকে ক্রমযোজিত গণসংখ্যা বলে।
১৫। যোজিত গড় কি?
উঃ কোন তথ্য নিবেশনে বিভিন্ন তথ্যের সমষ্টিকে তথ্যের সংখ্যা দ্বারা ভাগ করলে যে মান পাওয়া যায় তাকে যোজিত গড় বলে।
১৬। পরিসংখ্যানিক সম্ভাবনা কী?
উঃ পূর্ব নির্ধারিত শর্তের আলোকে কোন পরীক্ষণ অসংখ্যবার সংগঠিত হলে ঐ অসংখ্যবার সংগঠিত ফলাফলের কোন একটির অনূকুল ফলাফল ও মোট ফলাফলের অনুপাতের সীমায়িত মানকে উক্ত ঘটনার পরিসংখ্যানিক সম্ভাবনা বলে ।
১৭। পুনঃস্থাপন নমুনায়ন কি?
উঃ যে পদ্ধতিতে তথ্য বিশ্বের যেকোনো উপাদান একাধিক বার নমুনায়নে অন্তর্ভুক্ত হতে পারে সে পদ্ধতিকে পুনঃস্থাপন নমুনায়ন বলে ।
১৮। আস্থা সীমা বলতে কি বুঝায়?
উঃ কোন পরিসংখ্যানিক পরীক্ষার নমুনা হতে প্রাপ্ত মানের ভিত্তিতে সমগ্রকের মান কোন একটি নির্দিষ্ট সীমার (দুটি সংখ্যার মধ্যে) মধ্যে থাকার সম্ভাবনাকে আস্থার সীমা বলে।
১৯। প্রাক্কলন কি?
উঃ যে পরিসংখ্যানিক পদ্ধতিতে কোন প্রাক্কলকের সাহায্যে সমগ্রকের পরামিতির মান সম্পর্কে ধারণা দেয়া হয় তাকে প্রাক্কলন বলে ।
২০। ১ম প্রকার ভ্রান্তি কী?
উঃ নাস্তি কল্পনা সত্য হওয়া সত্ত্বেও তা বাতিল করা হলে যে ভ্রান্তি সংঘটিত হয় তাকে প্রথম প্রকারের ভুল বলে ।
২১। r=-1 এর অর্থ কি?
উঃ দু’টি চলকের মধ্যে পূর্ণ ঋণাত্মক সম্পর্ক বিদ্যমান ।
২২। p=-1 <r <0 এর অর্থ কি?
উঃ দু’টি চলকের মধ্যে আংশিক ঋণাত্মক সম্পর্ক বিদ্যমান ।
২৩। বাণিজ্যিক পূর্বাভাস কি?
উঃ অতীতের অভিজ্ঞতা ও ঘটনার প্রেক্ষিতে ব্যবসা-বাণিজ্যের ভবিষ্যৎ পরিস্থিতি অনুমান করার নিয়মতান্ত্রিক প্রচেষ্টাকে বাণিজ্যিক পূর্বাভাস বলে।
২৪। কালীন সারির সাধারণ ধারা পরিমাপের পদ্ধতি কি কি?
উঃ সাধারণ ধারা নির্ণয়ের পদ্ধতিগুলো হলো-
(ক) মুক্ত হস্তরেখা পদ্ধতি,
(খ) আধা গড় পদ্ধতি,
(গ) চলিষ্ণু গড় পদ্ধতি এবং
(ঘ) ন্যূনতম বর্গ পদ্ধতি।
২৫। নিরপেক্ষ প্রাক্কলক কি?
উঃ কোনো একটি প্রাক্কলকের গড় বা প্রত্যাশিত মান সমগ্রকের পরামিতির সমান হবে। ঐ প্রাক্কলককে নিরপেক্ষ প্রাক্কলক বলে।
২৬। সূচক সংখ্যা কি?
উঃ যে সংখ্যা মান দ্বারা বিভিন্ন সময় বিন্দুতে দামের/পরিমাণের আপেক্ষিক পরিবর্তনের হার প্রকাশ পায় তাকে বলা হয় সূচক সংখ্যা।
২৭। মূল্যমান সূচক সংখ্যা কি?
উঃ যে সূচক মোট মূল্যের সময়ভিত্তিক আপেক্ষিক পরিবর্তন প্রকাশ করে তাকে মূল্যমান সূচক সংখ্যা বলে।
২৮। কোন সূচক সংখ্যার দাম পরিবর্তনের অবমূল্যায়নের প্রবণতা রয়েছে?
উঃ মূল্যমান সূচক সংখ্যার দাম পরিবর্তনের
প্রবণতা রয়েছে।
২৯। ভিত্তি বছর কাকে বলে?
উঃ যে বছরের সাপেক্ষে অন্য বছরের সূচক সংখ্যা নির্ণয় করা হয় তাকে বলা হয় ভিত্তি বছর।
৩০। পরিসংখ্যানের জনক কে?
উঃ পরিসংখ্যানের জনক R. A. Fisher
৩১। কোন পরিসংখ্যানবিদ পরিসংখ্যানকে গড়ের বিজ্ঞান নামে অভিহিত করেছেন?
উঃ অধ্যাপক এ.এল. বাউলি (A.L. Bowley)
৩২। নমুনার ইংরেজি প্রতিশব্দ কী?
উঃ নমুনার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো Sample.
৩৩। সমগ্রকের ইংরেজি প্রতিশব্দ কী?
উঃ সমগ্রকের ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো Population.
৩৪। দৈব চলকের সংজ্ঞা দাও।
উঃ যে চলকের প্রত্যেকটি মানের একটি নির্দিষ্ট সম্ভাবনা থাকে তাকে দৈবচলক বলে। যেমন- ছক্কার উপরের পিঠে প্রাপ্ত মানগুলোর নির্দেশকারী চলকটি হলো দৈব চলক ।
৩৫। অবিচ্ছিন্ন চলক কি?
উঃ যখন কোনো চলক একটি নির্দিষ্ট পরিসরের অবিরত বাস্তব মান গ্রহণ করে তখন তাকে বলা হয় অবিচ্ছিন্ন চলক।
৩৬। ছোট নমুনা বলতে কি বুঝ?
উঃ নমুনায় তথ্যের সংখ্যা কম হলে (৩০ এর
চেয়ে কম) তাকে ছোট নমুনা বলা হয়।
৩৭। গণসংখ্যা কি?
উঃ প্রদত্ত তথ্য থেকে কোন শ্রেণির আওতাধীন যতগুলো সংখ্যা পাওয়া যায় তাকে ঐ শ্রেণির গণসংখ্যা বলে।
৩৮। ভেদাংক কি?
উঃ পরিমিত ব্যবধানের বর্গকে ভেদাংক বলে।
৩৯। তথ্যমানসমূহ শতকরা বা আনুপাতিক আকারে প্রকাশিত থাকলে কোন গড় ব্যবধান সবচেয়ে বেশি উপযোগী?
উঃ তথ্যমানসমূহ শতকরা বা আনুপাতিক আকারে প্রকাশিত থাকলে যোজিত গড়ভিত্তিক গড় ব্যবধান সবচেয়ে বেশি উপযোগী ।
৪০। পরিমিত ব্যবধান কখন শূন্য হয় ?
উঃ তথ্য সারির মানসমূহ পরস্পর সমান হলে পরিমিত ব্যবধানের মান শূন্য হয়।
৪১। পরিসর মাপের সূত্রটি লিখ।
উঃ পরিসর = সর্বোচ্চ মান – সর্বনিম্ন মান ৷
৪২। সম্ভাবনার সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন মান কত?
উঃ সর্বোচ্চ মান এক (1) এবং সর্বনিম্ন মান শূন্য (০)।
৪৩। সম্ভাবনার মান এক (1) হওয়ার অর্থ কি?
উঃ সম্ভাবনার মান এক (1) হওয়ার অর্থ ঘটনাটি নিশ্চিতভাবে ঘটবে।
৪৪। শর্তাধীন সম্ভাবনা কি?
উঃ কোন পরীক্ষায় যদি কোন ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা ইতিপূর্বে অন্য কোন ঘটনা ঘটা ও না ঘটার উপর নির্ভর করে তবে তাকে শর্তাধীন সম্ভাবনা বলে ।
৪৫। সমগ্রক বিন্যাস কাকে বলে?
উঃ একটি সমগ্রকের প্রত্যেকটি উপাত্তের বিপরীতে সম্ভাবনায় মান বসিয়ে যে বিন্যাস তৈরি করা হয় তাকে সমগ্রক বিন্যাস বলে।
৪৬। নমুনায়ন বিন্যাস কাকে বলে?
উঃ একটি সমগ্রকের আলাদা আলাদা নমুনা
হতে প্রাপ্ত আলাদা আলাদা নমুনাজ মান দ্বারা যে
বিন্যাস গঠিত হয় তাকে নমুনায়ন বিন্যাস বলে।
৪৭। নমুনায়ন বিচ্যুতি কি?
উঃ নমুনা জরিপের সাহায্যে সমগ্রকের প্রতিনিধিত্বকারী বৈশিষ্ট্য পরিমাপে যে বিচ্যুতি হয় তাকে নমুনায়ন বিচ্যুতি বলে।
৪৮। আদর্শ ভ্রান্তি কি?
উঃ কোন নমুনাজ মানের পরিমিত ব্যবধানই
হচ্ছে এর আদর্শ ভ্রান্তি।
৪৯। গড়ের নমুনায়ন বিন্যাস কাকে বলে?
উঃ সমগ্রক থেকে প্রাপ্ত নমুনার গড় নিয়ে যে
বিন্যাস গঠিত তাকে গড়ের নমুনায়ন বিন্যাস বলে।
৫০। দৈব নমুনায়ন কাকে বলে?
উঃ যে পদ্ধতিতে তথ্যবিশ্বের প্রতিটি একক নমুনাতে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা সমান তাকে দৈব নমুনায়ন বলে।

খ-বিভাগ (সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন)
১। পরিসংখ্যান বলতে কি বুঝ? ১০০%
২। ব্যবস্থাপকীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণে পরিসংখ্যানের ভূমিকা আলোচনা কর। ১০০%
৩। প্রাথমিক তথ্য সংগ্রহের পদ্ধতি আলোচনা কর। ১০০%
৪। ব্যবসায় পরিসংখ্যানের গুরুত্ব আলোচনা কর। ১০০%
৫। গাণিতিক গড় এত জনপ্রিয় কেন? ১০০%
৬। কেন্দ্রীয় প্রবণতা পরিমাপসমূহ কি? আলোচনা কর। ১০০%
৭। বিস্তার পরিমাপ কী?
৮। বিস্তার পরিমাপের পদ্ধতিসমূহ লিখ।
৯। সম্ভাবনার মান কেন ১ এর বেশি হয় না? ব্যাখ্যা কর।
১০। নমুনায়ন কি?

গ-বিভাগ (রচনামূলক প্রশ্ন)
১। প্রশ্নপত্র কি? তথ্য শ্রেণিবিভাগের ভিত্তিসমূহ উদাহরণসহ আলোচনা কর। ১০০%
২। নাস্তি কল্পনা ও বিকল্প কল্পনার মধ্যে পার্থক্য লিখ। ১০০%
৩। সংশ্লেষ বলতে কি বুঝ? ১০০%
৪। সহ-সম্বন্ধ পরিমাপের গুরুত্ব আলোচনা কর। ১০০%
৫। সহ-সম্বন্ধ ও নির্ভরণের পার্থক্য লেখ। ১০০%
৬। আয়তলেখ এবং কালীন সারির মধ্যে পার্থক্য দেখাও। ১০০%
৭। জীবনযাত্রার ব্যয়সূচক সংখ্যা বলতে কি বোঝায়? ৯৯%
৮। সূচক সংখ্যা নির্ণয়ের ক্ষেত্রে ভিত্তিবছর নির্বাচন সংক্রান্ত সমস্যা সংক্ষেপে আলোচনা কর। ৯৯%
৯। পূর্বাভাস বলতে কী বুঝ? ৯৯%
১০। সম্ভাবনার যোগ ও গুণের উপপাদ্য উদাহরণসহ বর্ণনা কর। ৯৯%
১১। পরিসাংখ্যিক উপাত্তসমূহ লৈখিক উপস্থাপনের গুরুত্ব আলোচনা কর। ৯৯%

★গাণিতিক সমস্যা
২০১৮ সালের: ৩, ৪, ৫, ১০, ১১, ১২, ১৩, ১৪, ১৫, ১৬, ১৭. ২০১৭ সালের: ৪, ২০১৪ সালের: ৩, ৮,

অনার্স দ্বিতীয় বর্ষ বিভাগের বিগত সালের প্রশ্ন:
হিসাববিজ্ঞান : ২০১৮ সালের: ১০, ৪, ৩, ৯, ৭, ১৬, ৫,
হিসাববিজ্ঞান : ২০১৭ সালের: ৬, ১৫, ৮, ১৩, ৭, ব্যাবস্থাপনা: ২০১৮ সালের: ১০, ১৫, ৭, ৬,
ব্যাবস্থাপনা: ২০১৭ সালের: ৩, ৫, ১১, ব্যাবস্থাপনা: ২০১৬ সালের: ৩, ৫, ১১, ৭*,
এছাড়াও, মার্কেটিং ও ফিনান্স বিভাগের ২০১৬ থেকে ২০১৮ সাল ফলো করবেন।

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*