Answer

দারিদ্র্য বলতে কি বুঝ?

অথবা, দারিদ্র্যের সংজ্ঞা দাও।
অথবা, দারিদ্র্য কী?
অথবা, দারিদ্র্য কাকে বলে?
অথবা, দারিদ্র্য ধারণাটি ব্যাখ্যা কর।
উত্তর৷ ভূমিকা :
যদিও পঞ্চাশের দশক থেকে আমাদের দেশে পরিকল্পিত উন্নয়ন শুরু হয়েছিল, কিন্তু সমাজের অবহেলিত ও দুর্বল শ্রেণি ও উন্নয়নের সুফল থেকে বঞ্চিত রয়েছে এবং যতদিন যায় ধনী ও গরিবের মধ্যকার এ ব্যবধান ক্রমশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই সমসাময়িকালে দারিদ্র্য একটি বহুল আলোচিত বিষয়, যা মানবতার প্রতি একটি বড় অভিশাপ । আধুনিক মানবসভ্যতার বিকাশে দারিদ্র্য একটি মারাত্মক অন্তরায়। অনুন্নত ও তৃতীয় বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশসমূহের বিশেষ করে বাংলাদেশের অনুন্নয়নের অন্যতম কারণ হলো দারিদ্র্য। দারিদ্র্যের সারিতে স্থান পাওয়া ১৩টি দেশের একটি হচ্ছে বাংলাদেশ। বর্তমান বিশ্বে ‘দারিদ্র্য বিমোচন’ একটি সামাজিক আন্দোলনের (Social movenent) রূপ নিয়েছে।
দারিদ্র্য (Poverty) : “Poor are poor because they are poor”. Lipton এর এ উক্তি দ্বারা সহজেই অনুমিত হওয়া যায় যে, এর কোনো সুনির্দিষ্ট সংজ্ঞা নেই। এটি একটি আপেক্ষিক প্রত্যয়। মানুষে মানুষে, দেশে দেশে, এর অবস্থানের তারতম্য হয়ে থাকে। তবে ধারণাগত দিক থেকে দারিদ্র্য হচ্ছে বেঁচে থাকার ন্যূনতম অবলম্বন সংগ্রহে ব্যর্থতা।
বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার অর্ধেক বা তার চেয়ে বেশি রয়েছে এ ধরনের দরিদ্র জনগণ, যাদের পরিচয় হচ্ছে :
i. আয় বঞ্চিত, ii. সম্পদ বঞ্চিত, iii. শিক্ষা বঞ্চিত, iv. সামাজিক নিরাপত্তা এবং v. রাজনৈতিক ক্ষমতা বঞ্চিত জনগণ । সুতরাং, যে দেশের ৫ থেকে ৬ কোটি লোক দরিদ্র, সেখানে সবকিছুই যে ক্রমশ ভেঙে পড়বে তা বুঝতে অর্থনীতির পড়ার প্রয়োজন হয় না।
প্রামাণ্য সংজ্ঞা : দারিদ্র্যের সংজ্ঞা সম্পর্কে বিভিন্ন সমাজবিজ্ঞানী বিভিন্ন মতামত ব্যক্ত করেছেন। নিম্নে কয়েকজন তাত্ত্বিকদের ধারণা দেওয়া হলো :
দ্যাল। অমৃত কুমার সেন এর মতে, “Poverty is like love in beholders eyes.” সমাজকল্যাণ বিশারদ আয়েশা নোমান বলেছেন, “সামাজিক ও অর্থনৈতিক দিক থেকে দরিদ্রতা বলতে সে স্তরকে
বুঝায়, যেখানে জীবনযাত্রার মান মৌলিক চাহিদা পূরণে সক্ষম।” অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন এর মতে, “দারিদ্র্য একটি আপেক্ষিক বঞ্চনা, যা একজনের কাছে দারিদ্র্য অন্যের কাছে নাও হতে পারে।”
উপসংহার : উপর্যুক্ত সংজ্ঞাগুলোর আলোকে বলা যায়, দারিদ্র্য হচ্ছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার নিচে বসবাসকারী জনগোষ্ঠীর জীবনপ্রবাহ যাদের সিংহভাগই ২১০০ কিলো ক্যালরির কম খাদ্য গ্রহণকারী এবং গড় বার্ষিক আয় ১০,০০০ টাকার কম। তাছাড়া এরা উচ্চ শ্রেণির পদানত ও শোষিত জনগোষ্ঠী। মোটকথা আর্থসামাজিক বঞ্চনা বোধের অবস্থানের অপর নামই হলো দারিদ্র্য।

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!