চলমান মাঠকর্ম অনুশীলনের বিষয়বস্তু লিখ।

অথবা, চলমান মাঠকর্ম অনুশীলনের বিষয়বস্তু কি কি?
অথবা, চলমান মাঠকর্ম অনুশীলনের বিষয়বস্তুসমূহ উল্লেখ কর।
অথবা, চলমান মাঠকর্ম অনুশীলনের বিষয়বস্তুসমূহ তুলে ধর।
উত্তর৷। ভূমিকা :
চলমান মাঠকর্মের শিক্ষার্থী ব্যক্তি, দল, সমষ্টির সাথে কাজ করার পর সম্পাদিত কেসগুলো তত্ত্ববধায়কের পরামর্শ অনুযায়ী প্রস্তুত করে থাকে। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে চলমান মাঠকর্ম অনুশীলন হয়ে থাকে ।তাই মাঠকর্মের বিষয়বস্তু জানা মাঠকর্মীর জন্য অত্যাবশ্যক।
চলমান মাঠকর্ম অনুশীলনের বিষয়বস্তু : নিম্নে মাঠকর্ম অনুশীলনের বিষয়গুলো উল্লেখ করা হলো :
চিকিৎসা সমাজকর্ম/হাসপাতাল সমাজসেবা : মাঠকর্ম অনুশীলনের অন্যতম বিষয়বস্তু হলো চিকিৎসা সমাজকর্ম অথবা হাসপাতাল সমাজসেবা। এক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো জানতে হয় সেগুলো হলো :
১. রোগীর মনোসামাজিক সমস্যা নির্ধারণ করা;
২. ব্যক্তি সমাজকর্ম ও দল সমাজকর্ম সম্পর্কে জ্ঞান থাকা;
৩. প্রতিবন্ধী ও অসুস্থতার জন্য পুনর্বাসন পরিকল্পনা করা;
৪. একাধিক দলের সাথে কাজ করার আগ্রহ থাকা;
৫. স্বাস্থ্য কর্মসূচি সম্পর্কে ধারণা অর্জন ।
সমষ্টি উন্নয়ন : সমষ্টি উন্নয়ন মানে গ্রামীণ ও শহর সমষ্টি উন্নয়ন। মাঠকর্মের আওতায় গ্রামীণ ক্ষমতা কাঠামো এবং দলীয় গতিশীলতা অর্জন করার চেষ্টা করা। এজন্য বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে হয়। যেমন অনুধ্যান, গণযোগাযোগ, যোগাযোগ নেতৃত্ব, অর্থ সংগ্রহ, প্রতিবেদন লিখন প্রভৃতি। এগুলো একজন উন্নয়নকর্মীর জন্য অত্যাবশ্যক।সমষ্টি উন্নয়নের ক্ষেত্রে পরিকল্পনা গ্রহণ ও পদ্ধতি প্রয়োগের ব্যাপারে গ্রামীণ জনগণকে গুরুত্ব দেয়া হয়। এজন্য
শিক্ষানবিশ সমাজকর্মীকে তাত্ত্বিক জ্ঞানের পাশাপাশি তা বাস্তবে প্রয়োগ করতে হয় ।
পরিবার ও শিশু কল্যাণ : মাঠকর্ম অনুশীলনের অন্যতম বিষয় হলো পরিবার ও শিশু কল্যাণ। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীরা তাদের শ্রেণিকক্ষের জ্ঞানকে প্রয়োগ করে থাকে। পরিবার ও শিশুকল্যাণের অন্তর্ভুক্ত বিষয়গুলো হলো :
বিভিন্ন থেরাপির মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সক্ষম করে তোলা;
সমাজকর্মের পদ্ধতিসমূহ প্রয়োগ করার উপযোগী পরিবেশ তৈরি করা; পরিবার ও শিশুদের কল্যাণের নিমিত্তে শিক্ষার্থীদের সক্ষম করে তোলা।
মানব সম্পদ ব্যবস্থা : মাঠকর্মের অনুশীলনের একটি অন্যতম বিষয় হলো মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা। এক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো সম্পর্কে জ্ঞান থাকা দরকার সেগুলো হলো:
১. সমাজকর্মের পদ্ধতিসমূহ শিল্পক্ষেত্রে প্রয়োগের পরিবেশ তৈরি করা;
২. শিল্প সম্পর্কে ধারণা অর্জন;
৩. শিক্ষার্থীদের শ্রম আইনের সাথে পরিচয় করানো;
৪. মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার দক্ষতা অর্জন করা;
৫. মানব সম্পদের চাহিদা নির্ধারণ;
৬. এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের দক্ষতা অর্জন।
৭. শ্রেণিকক্ষের জ্ঞান ও মাঠকর্মের জ্ঞানের মধ্যে সমন্বয় করা প্রভৃতি।

৮. মানব সম্পদ ব্যবস্থাপনার চলমান মাঠকর্মের প্রয়োগ কৌশল জানা ।
উপসংহার : উপর্যুক্ত আলোচনার শেষে বলা যায় যে, মাঠকর্ম অনুশীলনের বিভিন্ন বিষয় রয়েছে। এগুলো সম্পর্কে সঠিক ধারণা থাকলে যে কোনো মাঠকর্মী সহজেই তার লক্ষ্য অর্জন করতে পারে। তবে বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশে মাঠকর্মগুলো অধিকাংশ নিম্নশ্রেণি তথা সমাজে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর স্বার্থ সংশ্লিষ্ট হয়ে থাকে।

https://topsuggestionbd.com/%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a5%e0%a6%ae-%e0%a6%85%e0%a6%a7%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%af%e0%a6%bc%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a0%e0%a6%95%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%ae/
পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*