আবদুল ওদুদের রাষ্ট্রদর্শন সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোচনা কর।

অথবা, রাষ্ট্রদর্শনে আবদুল ওদুদের অবদান কী?
অথবা, রাষ্ট্রদর্শনে আবদুল ওদুদের ভূমিকা কী?
অথবা, রাষ্ট্রদর্শনে আবদুল ওদুদের গুরুত্ব কী?
উত্তর।৷ ভূমিকা :
মুসলিম সাহিত্য সমাজের অন্তর্গত বুদ্ধির মুক্তি আন্দোলনের যে কয়েকজন সদস্য রয়েছেন কাজী আবদুল ওদুদ তাদের মধ্যে অন্যতম। তিনি মুক্তবুদ্ধির প্রবক্তা, মননশীল ও প্রগতিশীল শিক্ষাবিদ হিসেবে সুপরিচিত ছিলেন। তার দর্শন চিন্তায় পাশ্চাত্য ও প্রাচ্যের প্রভাব সুস্পষ্ট। তিনি পশ্চাৎপদ, কুসংস্কারাচ্ছন্ন, গোঁড়া মুসলিম সমাজে মুক্ত চিন্তা ও অসাম্প্রদায়িক মনোভাব জাগ্রতকরণে বিশেষ অবদান রাখেন। রাষ্ট্রদর্শনেও তার অবদান রয়েছে।
রাষ্ট্রদর্শনে আবদুল ওদুদ : কাজী আবদুল ওদুদের রাষ্ট্রচিন্তা তাঁর বিরাট দার্শনিক প্রজ্ঞার পরিচয় বহন করে। তিনি রাষ্ট্র চিন্তায় মহাত্মা গান্ধীর অহিংস রাজনীতি দ্বারা প্রভাবিত হয়েছেন। গান্ধীর মতো তিনিও অহিংস রাজনীতির কথা বলেন। তিনি জিন্নাহর দ্বিজাতি তত্ত্বের বিরোধিতা করেছেন এবং ভারত বিভাগকে সমর্থন করেননি। তিনি অবিভক্ত ও সমৃদ্ধ ভারতের স্বপ্ন দেখেছিলেন। তিনি মনে করেন, বিভক্তিতে শান্তি থাকে না। অবিভক্ত ভারতেই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার মানসিকতা গঠন করে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব। তবে তিনি ভাষার ভিত্তিতে ভারত বিভাগকে সমর্থন করেছেন, কেবলমাত্র ধর্মভিত্তিক বিভক্তিকে তিনি সমর্থন দেননি। মূলত অসাম্প্রদায়িক ভারতীয় বা ভাষাভিত্তিক জাতীয়তার বিকাশ তার কাম্য ছিল।
তিনি ইসলামি রাষ্ট্রের বিরোধিতা করেছেন। কেননা তিনি ধর্মভিত্তিক রাষ্ট্রের বিরোধী ছিলেন। তিনি মনে করেন শরিয়তের পুনঃপ্রবর্তন সম্ভব নয়, কারণ আমরা চাইলেও অতীতে ফিরে যেতে পারি না। আর তাই অতীতের ইসলামি রাষ্ট্রের স্বপ্ন বাস্তবায়নও অসম্ভব। তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক উভয় জীবনে ইসলামি রাষ্ট্রের সমর্থন করেননি। তিনি তার “মুস্তাফা কামাল সম্পর্কে কয়েকটি কথা” প্রবন্ধে বলেন, “প্যান ইসলামিক চিন্তা মুসলমানকে বহির্মুখী করে তোলে এবং স্বদেশ ও স্বজাতির প্রতি উদাসীন করে। মুসলমানদের স্বদেশ ও স্বজাতির দুঃখ দৈন্যের অবসানের চিন্তা করা উচিত। প্যান ইসলামবাদ নয়, বাস্তব জাতীয়তাবাদই মুসলমানদের কাম্য।”
উপসংহার : উপর্যুক্ত আলোচনার আলোকে আমরা বলতে পারি যে, মুক্তচিন্তার ধারক, যুক্তিবাদী, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী, মানবতাবাদী দার্শনিক কাজী আবদুল ওদুদ বাঙালি দর্শনের একজন বিশিষ্ট দার্শনিক। তিনি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনের পক্ষে ছিলেন। তিনি তার রাষ্ট্রদর্শনে জাতি বা বর্ণগত ভেদাভেদের ঊর্ধ্বে সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ ঐক্যবদ্ধ ও সমৃদ্ধ রাষ্ট্র গঠনের কথা বলেন। তার রাষ্ট্রদর্শন প্রগতিশীল বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন ছিল।

https://topsuggestionbd.com/%e0%a6%a6%e0%a6%b6%e0%a6%ae-%e0%a6%85%e0%a6%a7%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%af%e0%a6%bc%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a6%9c%e0%a7%80-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%8d%e0%a6%a6%e0%a7%81%e0%a6%b2-%e0%a6%93/
পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*