Honours Suggestion

অনার্স প্রথম বর্ষ পরীক্ষা ২০২৩ বিভাগ উদ্ভিদবিজ্ঞান বিষয় অণুজীববিজ্ঞান ২১৩০০১ রকেট স্পেশাল সাজেশন

ক_বিভাগ (অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন)
১। পুর্নরুপ লিখ- GSS, BSE, PSTV, HSV, CCCVD, PPLO, MLO, MLB, PAP, CRD, CJD, AIDS, HIV.
২। যক্ষ্মা রোগের জীবাণুর নাম লিখ।
উঃযক্ষ্মা রোগের জীবাণুর নাম Mycobacterium tuberculosis
৩। রবার্ট কক্ কেন বিখ্যাত?
উঃGerm Theory of Disease আবিষ্কারের জন্য।
৪।এনথ্রাক্স রোগের জীবাণুর নাম কি?
উঃBacillus anthracis.
৫।কে সর্বপ্রথম স্বতঃস্ফুর্ত উৎপত্তি মতবাদের বিরোধিতা করেন?
উঃ ফ্রান্সিসকো রেডি নামক ইতালিয়ান
চিকিৎসক ও প্রকৃতি বিজ্ঞানী পরীক্ষার মাধ্যমে
স্বতঃস্ফূর্ত উৎপত্তি মতবাদের বিরোধিতা করেন।
৬। জীবজনি মতবাদের পক্ষে ছিলেন এমন দুজন
বিজ্ঞানীর নাম উল্লেখ কর।
উঃ জীবজনি মতবাদের পক্ষে ছিলেন এমন দুজন
বিজ্ঞানীর নাম-
১. ফ্রান্সিসকো রেডিও
২. স্প্যালাগুলি।
৭। হুইটেকারের শ্রেণিবিন্যাসের ভিত্তিগুলো কি কি?
উঃ হুইটেকারের শ্রেণিবিন্যাসের ভিত্তি তিনটি।
যথা- (১) কোষের ধরন; (২) দেহের সংগঠন ও
(৩) পুষ্টির ধরন।
৮। কোন উপজাতি থেকে কুরু রোগ আবিষ্কার হয়?
উঃ নিউগিনির দুর্গম প্রত্যন্ত অঞ্চলের কিছু
উপজাতি থেকে কুরু রোগ আবিষ্কার হয়।
৯।ভ্যাকসিন কি? ভ্যাকসিন এর জনক কে?
উঃরোগ নির্মূলের জন্য যে টীকা প্রয়োগ করা
হয় তাকেই ভ্যাকসিন বলে । ভ্যাকসিন-এর জনক এডওয়ার্ড জেনার।
১০। ভিরিয়ডস কি?
উঃ প্রোটিন বিহীন, শুধুমাত্র RNA দ্বারা গঠিত
সংক্রামক সত্ত্বা যা শুধু উদ্ভিদদেহে রোগ সৃষ্টি করতে
পারে তাকে ভিরিয়ডস বলে ।
১১। কিউ জ্বর (Q Fever) কি?
উঃ Rickettsia burnétii বা Coxiella burnetii
নামক পরজীবী দ্বারা মানুষের এক ধরনের রোগ যা
সমগ্র বিশ্বেই দেখা যায়। যা কিউ জ্বর নামে পরিচিত।
১২। রিকেটসিয়া জীবাণু আবিষ্কারে যে দুজন বিজ্ঞানী মারা যায় তাদের নাম লিখ।
উঃ (1) Howard T. Ricketts; (2) Baron
Von Prowazek.
১৩। ফাইটোপ্লাজমা কি?
উঃ উদ্ভিদ রোগ সৃষ্টিকারী মাইকোপ্লাজমাবে
ফাইটোপ্লাজমা বলে।
১৪। প্লিওমরফিজম বলতে কী বুঝ?
উঃ ভিন্ন ভিন্ন অবস্থায় কোনো জীবের বহুরুপ
ধারণ করাকে প্লিওমরফিজম বলে।
১৫। ক্যাপসিড কি?ক্যাপসোমিয়ার কাকে বলে?
উঃ Virus কণার প্রোটিন গঠিত আবরণকে
ক্যাপসিড বলে।Virus ক্যাপসিডের এক একটি প্রোটিন অণুকে ক্যাপসোমিয়ার বলে।
১৬। ব্যাকটেরিওফাজ কি?
উঃ ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসকারী ভাইরাসকে
ব্যাকটেরিওফাজ বলা হয়।
১৭। লাইসোজেনিক চক্র কি?
উঃ যে চক্রের মাধ্যমে ভাইরাসের সংখ্যা বৃদ্ধি
ঘটে থাকে তাকে লাইসোজেনিক চক্র বলা হয়।
১৮। একটি একসূত্রকে DNA ভাইরাসের উদাহরণ
দাও।
উঃ কোলিফাজ ভাইরাস বা p × 174 ভাইরাস।
১৯। কে সর্বপ্রথম টোব্যাকো মোজাইক ভাইরাসকে
বিচ্ছিন্ন করতে সক্ষম হন?
উঃ মার্কিন বিজ্ঞানী স্ট্যানলী এবং মিলার
২০। ভাইরাস তত্ত্ব কি?
উঃ অণুজীববিজ্ঞানের যে শাখায় ভাইরাসের
গঠন, সংখ্যা বৃদ্ধি, প্রকৃতি, বিস্তৃতি, বংশগতি এবং
তাদের উপকারি ভূমিকা সম্পর্কে আলোচনা ও
গবেষণা করা হয় তাকে ভাইরাস তত্ত্ব বলা হয়।
২১। জিনোফোর কি?
উঃ ব্যাকটেরিয়ার জেনেটিক পদার্থ বা DNA
কে জিনোফোর বলা হয়।
২২। ভাইরাল কনভারশন কী?
উঃ কোনো ভাইরাস কোষকে এক অবস্থা থেকে
অন্য অবস্থায় পরিবর্তন করার পদ্ধতিকে ভাইরাল
কনভারশন বা ভাইরাল রূপান্তর বলে।
২৩। উদ্ভিদের রোগ উৎপাদনকারী দু’টি ব্যাকটেরিয়ার
নাম লিখ।
উঃ ১. ধানের ব্লাইট-Xanthomonas oryzae.
২. লেবুর ক্যাঙ্কার-Xanthomonas citrii.
২৪। পিলিন কি?
উঃ ব্যাকটেরিয়ার পিলি এক ধরনের বিশেষ
প্রেটিন দ্বারা গঠিত যাকে পিলিন বলে।
২৫। ট্রান্সডাকশনের সংজ্ঞা দাও।
উঃ যে প্রক্রিয়ার ভাইরাসের মাধ্যমে কোনো একটি
ব্যাকটেরিয়া হতে জেনেটিক পদার্থ অপর একটি
ব্যাকটেরিয়াতে স্থানান্তরিত হয়ে ঐ ব্যাকটেরিয়াকে
নতুন পদ্ধতির একটি ব্যাকটেরিয়াতে পরিণত করে
তাকে ট্রান্সডাকশন বলে।
২৬। প্লাজমিড কি?
উঃ ক্রোমোজোম বহির্ভূত স্বপ্রতিলিপনে সক্ষম,
ক্ষুদ্র DNA অণু যা বংশগতির বৈশিষ্ট্য নিয়ন্ত্রক জিন
বহনে সক্ষম তাদেরকে প্লাজমিড বলা হয়।
২৭। নিউমোনিয়া রোগ সৃষ্টির জন্য দায়ী এমন দুইটি
অণুজীবের নাম লেখ।
উঃ (i) Streptococcus preumoniae ও (ii)
Mycoplasma pneumoniae.
২৮। ব্যাকটেরিয়ার অন্তঃরেণু কী?
উঃ কতিপয় ব্যাকটেরিয়া অত্যন্ত প্রতিকূল
পরিবেশে সাইটোপ্লাজমে পুরু প্রাচীরবিশিষ্ট একটি
মাত্র স্পোর তৈরি করে যা অনুকূল পরিবেশে
অঙ্কুরিত হয় তাকে ব্যাকটেরিয়ার অন্তঃরেণু বলে।
২৯। চ্ছটা ছত্রাক কী?
উঃ অ্যাকটিনোমাইসোটিসকে
চ্ছটা ছত্রাক নামে অভিহিত করা হয়।
৩০। Actinomycetes দ্বারা মানুষের কি রোগ হয়?
উঃ Actinomycosis / Actinomyces.
৩১। Penicillin এর উৎস কী?
উঃ Penicillium chrysogenum
৩২। অ্যাকটিনোরাইজা কী?
উঃ ফিলামেন্টাস বিশিষ্ট ব্যাকটেরিয়া Frank
অ্যাকটিনোমাইসেটিস ও নাইট্রোজেন সংবন্ধন
নডিউলে অবস্থান করাকে অ্যাকটিনোরাইজা বলে
৩৩। বিশুদ্ধ আবাদ কী?
উঃ যে আবাদ মাধ্যমে সকল প্রকার পুষ্টি
পদার্থের উপস্থিতিতে অণুজীব আবাদ করা হয়,
তাকে বিশুদ্ধ আবাদ বলা হয়।
৩৪। ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি দশাগুলো কী কী?
উঃ চারটি। যথা- Log phase, Lag phase,
Stationary phase ও Death phase.
৩৫। জেনারেশন টাইম কি?
উঃ অণুজীবের জনসংখ্যা দ্বিগুণ হওয়ার জন্য যে
সময়ের প্রয়োজন হয়, তাকে অণুজীবের জেনারেশন
টাইম বলে।
৩৬। এন্টাগোনিজম বলতে কি বুঝ?
উঃ একটি জীবের কার্যক্রম অন্য একটি জীবের
কার্যক্রম দ্বারা বাধা প্রদান করাকে ক্ষতিকর আন্ত
ঃক্রিয়া বলে এবং এই ঘটনাকে এন্টাগোনিজম বা
Antagonism বলে।
৩৭। সিনারজিসম (Synergism) কি?
উঃ প্রকৃতিতে যখন দুইটি জীবের সম্মিলিত
ক্রিয়ার ফলে উৎপন্ন দ্রব্য দ্বারা উভয়ই উপকৃত হয়
কিন্তু এককভাবে কোনো জীবই উক্ত দ্রব্য উৎপন্ন
করতে পারে না, জীবদ্বয়ের এ ঘটনাকে
সিনারজিসম (Synergism) বলে।
৩৮। একটি মিথোজীবী নাইট্রোজেন সংবন্ধনকারী
ব্যাকটেরিয়ার নাম লিখ।
উঃ Clostridium
৩৯। একটি অমিথোজীবী নাইট্রোজেন সংবন্ধনকারী
ব্যাকটেরিয়ার নাম লিখ।
উঃ Clostridium
৪০। কিয়োট্রপস বলতে কী বুঝ?
উঃ যে সকল অণুজীব জৈব ও অজৈব যৌগকে
জারণের মাধ্যমে নিজেদের প্রয়োজনীয় শক্তি সংগ্রহ
করে তাদের কিমোট্রপস বা রাসায়নিক ভোজী বলে ।
৪১। VAM কী?
উঃ ভাস্কুলার উদ্ভিদে সাধারণত যে ধরনের
মাইকোরাইজা দেখা যায় তাকে VAM বা
ভেসিকুলার অরবাস্কুলার মাইকোরাইজা বলে।
৪২। সিডেরোফোরাস কি?
উঃ সিডেরোফোরাস হচ্ছে ব্যাকটেরিয়া হতে
নিঃসৃত সেকেন্ডারি মেটাবোলাইটস। এটি একটি
নিম্ন আণবিক যৌগ। একে অণুজীবের লৌহ
চিলেটিং যৌগ বলা হয় ।
৪৩। ফার্মেন্টেশন কী?
উঃ অণুজীবে কার্যকারিতায় যে-কোনো বস্তুকে
পঁচানোর পদ্ধতিতে ফার্মেন্টেশন বলা হয়।
৪৪। ধনুষ্টংকার রোগের জীবাণুর নাম লিখ।
উঃ টিটেনাস বা ধনুষ্টঙ্কার রোগের জীবাণুর
নাম- Clostridium tetani.
৪৫। কলেরা রোগের জীবানুর নাম কী?
উঃ vibrio cholerae

খ-বিভাগ (সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন)
১। অ্যাকটিনোমাইসিটিসের বৈশিষ্ট্য ও গুরুত্ব লিখ। ১০০%
২। ভিরয়েডস-এর সাধারণ বৈশিষ্ট্য লিখ। ১০০%
৩। মিথোজীবিতা বলতে কী বুঝ? উদাহরণসহ ব্যাখ্যা কর। ১০০%
৪। অণুজীববিজ্ঞানে রবার্ট কক/লুইপাস্তুরের অবদান আলোচনা কর। ১০০%
অথবা, অণুজীববিজ্ঞানে এডওয়ার্ড জেনারের অবদান উল্লেখ কর।
৫। ভাইরাস ও ভিরয়েডস এর মধ্যে পার্থক্য লিখ। ১০০%
৬। ফ্ল্যাজেলার উপর ভিত্তি করে ব্যাকটেরিয়ার শ্রেণিবিন্যাস কর। ১০০%
অথবা, কোষের আকৃতির ভিত্তিতে ব্যাকটেরিয়ার শ্রেণিবিন্যাস কর। ৯৯%
৭। ভাইরাসকে জীব ও জড়ের যোগসূত্র বলা হয় কেন? ১০০%
৮। কর্ক কী? কর্কের স্বীকার্যগুলো লিখ। ১০০%
৯। আর্কিয়া কি? আর্কিয়ার গুরুত্ব লিখ। ১০০%
১০। ভাইরাসের দমন পদ্ধতি লিখ। ১০০%
১১। রিকেটসিয়ার সংখ্যাবৃদ্ধির পদ্ধতি/বৈশিষ্ট্যগুলো লিখ। ৯৯%
১২। ব্যাকটেরিয়ার ফ্লাজেলা ও পিলি-এর মধ্যে পার্থক্য উল্লেখ কর। ৯৯%
১৩। নির্দিষ্ট জীবাণুর নামসহ মানুষের তিনটি রিকেটসিয়াজনিত রোগের নাম লিখ। ৯৯%
১৪। একটি ব্যাকটেরিয়া কোষের চিহ্নিত চিত্র অংকন কর। ৯৯%
১৫। মাইকোপ্লাজমার সাধারণ বৈশিষ্ট্য লিখ। ৯৮%
১৬। অণুজীববিজ্ঞানের স্বর্ণযুগ বর্ণনা কর। ৯৮%

গ-বিভাগ (সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন)

১। হুইটেকারের পাঁচ রাজ্য ধারণা আলোচনা কর। ১০০%
২। রোগ উৎপাদক হিসারে মাইকোপ্লাজমার ভূমিকা আলোচনা কর। ১০০%
৩। উদ্ভিদ ভাইরাস স্থানান্তরের উপায়গুলো বর্ণনা কর। ১০০%
৪। চিত্রসহকারে ব্যাকটেরিয়ার গ্রোথ কার্ভ বর্ণনা কর। ১০০%
৫। যক্ষ্মা ও এইডস রোগ সৃষ্টিকারী অণুজীবের নাম, রোগ লক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা লিখ। ১০০%
৬। চিহ্নিত চিত্রসহ T২ ভাইরাসের ভৌত ও রাসায়নিক গঠন বর্ণনা কর। ১০০%
অথবা, চিত্রসহ ফাজ ভাইরাসের সংখ্যাবৃদ্ধির প্রক্রিয়া বর্ণনা কর। ৯৯%
৭। ট্রান্সডাকশন বলতে কী বুঝ?ব্যাকটেরিয়ার ট্রান্সডাকশন পদ্ধতি বর্ণনা কর। ১০০%
৮। অণুজীবের আন্তঃক্রিয়া বলতে কি বুঝ? অণুজীবের বিভিন্ন ধরনের আন্তঃক্রিয়া আলোচনা কর। ১০০%
৯। ব্যাকটেরিয়ার কোষ প্রাচীরের রাসায়নিক গঠনের বিশদ বর্ণনা দাও। ১০০%
১০। বংশগতীয় পুনর্বিন্যাস কী? ব্যাকটেরিয়ার কনজুগেশন পদ্ধতি বর্ণনা কর। ১০০%
১১। টীকা লিখ : ১০০%
পাস্তুরাইজেশন; আর্কিব্যাকটেরিয়া; কৃষিতে ব্যাকটেরিয়ার গুরুত্ব, ভিরয়েডস, প্রিয়ন, রিকেটসিয়া, প্লাজমিড।
১২। মাইক্রোবিয়াল এসোসিয়েশন বলতে কী বোঝায়? উদাহরণসহ পজেটিভ ও নেগেটিভ আন্তঃক্রিয়া ব্যাখ্যা কর। ৯৯%
১৩। চিহ্নিত চিত্রসহ একটি উদ্ভিদ ভাইরাসের গঠন বর্ণনা কর। ৯৯%
১৪। ব্যাকটেরিয়া ও অ্যাকটিনোমাইসিটিসের মধ্যে সংক্ষেপে তুলনামূলক আলোচনা কর। ৯৯%
১৫। অণুজীবের জেনারেশন টাইম বলতে কী বুঝ? ব্যাকটেরিয়ার জেনারেশন টাইম নির্ণয়ের পদ্ধতি বর্ণনা কর। ৯৯%
১৬। প্রিয়নস কি? প্রিয়নস আবিষ্কারের ইতিহাস সংক্ষেপে বর্ণনা কর। ৯৮%

পরবর্তী পরীক্ষার রকেট স্পেশাল সাজেশন পেতে হোয়াটস্যাপ করুন: 01979786079

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!